কোটা সংস্কার আন্দোলনে মার্কিন দূতাবাসের সমর্থন

প্রকাশিত: ১:২৬ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০১৮

কোটা সংস্কার আন্দোলনে মার্কিন দূতাবাসের সমর্থন

সাদ্দাম হোসেন

কোটা সংস্কার আন্দোলনে শিক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকে সমর্থন দিয়েছে ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস। একই সাথে তারা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের উপর ক্ষমতাসীন ছাত্রসংগঠনের হামলাকে দেশ গঠনের মৌলিক নীতির বিরোধী বলেও মন্তব্য করেছে। সোমবার (৯ই জুুলাই) ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাসের নিজস্ব ফেসবুক পেজ “ইউএস অ্যাম্বাসি ঢাকা”তে তারা এসব তথ্য জানায়।
সেখান থেকে আরো জানা যায়, তারা বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের পাশে আছে। কেননা যারা বাক-স্বাধীনতা, সমাবেশ ও শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদসহ মৌলিক গণতান্ত্রিক অধিকারের চর্চা করে মার্কিন সরকার সবসময় তাদের পাশে আছে। ওই পোস্টে হ্যাশট্যাগ দিয়ে লেখা হয়, ‘পিসফুল প্রোটেস্ট বিডি’। অর্থাৎ শিক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকে ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস সমর্থন দিয়েছে।
বর্তমান সময়ে আলোড়ন সৃষ্টিকারী আন্দোলন হয়ে দাড়িয়েছে কোটা সংস্কার আন্দোলন। গত ৮ই এপ্রিল এই আন্দোলন প্রকোপ আকার ধারণ করলে সরকার আন্দোলনকারীদের দাবি মেনে নিতে বাধ্য হয়। এসময় শিক্ষার্থীরা কোটা সংস্কারের দাবিতে বিক্ষোভ করলেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোটা ব্যবস্থা বাতিলের ঘোষণা দেন। শিক্ষার্থীরা প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসে তাদের আন্দোলন স্থগিত করে। কিন্তু দীর্ঘ দুই মাস অতিবাহিত হওয়ার পরও এ সংক্রান্ত কোনো প্রজ্ঞাপন না আসায় তারা ঈদের পর আবার আন্দোলনের ডাক দেয়।
গত ৩০শে জুন তাদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে সংবাদ সম্মেলন করার কথা ছিল। কিন্তু সংবাদ সম্মেলন শুরু হওয়ার ঠিক পূর্ব মুহূর্তে ক্ষমতাসীন ছাত্রসংগঠনের নেতাকর্মীরা এতে হামলা চালায়। এতে ঘটনাস্থলে কোটা আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী কয়েকজন নেতা আহত হন। এরপর থেকেই আন্দোলনকারীরা বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছে। আর তাদের এসব কর্মসূচিতে অতর্কিতভাবে হামলা চালাচ্ছে ক্ষমতাসীন ছাত্রসংগঠনের নেতাকর্মীরা।