ক্র্যাশ প্রোগ্রামে পরিবহন শ্রমিকদের টিকাদান শুরু

প্রকাশিত: ৬:০৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৯, ২০২২

ক্র্যাশ প্রোগ্রামে পরিবহন শ্রমিকদের টিকাদান শুরু
নিউজ ডেস্ক:
রাজধানীতে পরিবহন চালক-শ্রমিকদের করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা দেয়া শুরু হয়েছে। ১৯ জানুয়ারী (বুধবার) সকাল থেকে মহাখালীর আন্তজেলা বাস টার্মিনালে এই টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়।
ঢাকা সিভিল সার্জন অফিসের মেডিক্যাল অফিসার ঝুমানা আশরাফি বলেন, ‘এনআইডি না থাকলেও জন্মনিবন্ধনের মাধ্যমে দেয়া হবে টিকা, বিআরটিএ ও বিভিন্ন সংগঠনের মাধ্যমে তালিকা সংগ্রহ করা হবে। এটি সারা দেশের পরিবহন চালক-শ্রমিকদের এই টিকা দেয়া হবে।’
তিনি বলেন, ‘বাস টার্মিনালে আমরা টিকা দিচ্ছি। আসলে এখানে টিকা দেয়ার পরিবেশ নয়। আমরা মূলত গণপরিবহন শ্রমিকদের টিকাদান কর্মসূচি এখানে শুরু করেছি। ১০০ পরিবহন শ্রমিককে টিকা দেয়া হবে। এরপর নিকটবর্তী কোনো করোনা টিকাদান কেন্দ্রে এই টিকা দেয়ার ব্যবস্থা করা হবে। তবে আপাতত আজকে ১০০ জনকে টিকা দিয়ে এই ক্যাম্পেইন শেষ হচ্ছে।’
এরপর বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) থেকে পরিবহন শ্রমিকদের তালিকা নিয়ে একটি দিন নির্ধারণ করে সবাইকে টিকা দেয়া হবে। মহাখালী বাস টার্মিনালে পরিবহণ শ্রমিকদের তেজগাঁও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকা দেয়া হবে বলে জানান তিনি।
পরিবহন চালক-শ্রমিকদের জন্য টিকাদানে একটি ক্র্যাশ প্রোগ্রাম হাতে নেয়ার কথা জানিয়েছিলেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার।
তালিকা তৈরির পর বুধবার থেকে টিকাদান শুরু হয়। অবশ্য পূর্ণাঙ্গ তালিকা এখনও না পাওয়ায় শুধু ক্যাম্পেইন শুরুর জন্য আজ ১০০ জনকে টিকা দেয়া হচ্ছে।
রাজধানীর পাশাপাশি এই কার্যক্রম সারা দেশেই করা হবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।
গত সপ্তাহে পরিবহন মালিকদের সঙ্গে বৈঠক করে বিআরটিএ কর্মকর্তারা। সেখানে পরিবহন মালিকরা জানান, তাদের চালক ও শ্রমিকদের ৮০ শতাংশের বেশি এখনও টিকার আওয়াত আসেননি। তাদের জন্য টার্মিনালগুলোতেই টিকা দেয়ার ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানান।
সরকার সব শ্রেণি-পেশার মানুষের টিকা নিশ্চিতে গত বছর ফেব্রুয়ারি থেকে টিকা কার্যক্রম শুরু করে। এ ছাড়া ১২ বছরের বেশি বয়সী শিক্ষার্থীদের টিকা দিতেও শুরু করেছে সরকার। চলতি মাসে চার কোটি টিকাদান করার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের।
জানা গেছে, দেশের সড়ক পরিবহন খাতে কাজ করা শ্রমিক প্রায় ৫০ লাখ। এ ছাড়া যানবাহন মেরামতসহ নানা কাজে যুক্ত শ্রমিক আছেন আরও প্রায় ২০ লাখ। সব মিলিয়ে বাস, ট্রাক, অটোরিকশা, নছিমন, করিমনের সঙ্গে যুক্ত শ্রমিকের সংখ্যা প্রায় ৭০ লাখ। এর মধ্যে শুধু যাত্রীবাহী বাসের শ্রমিকের সংখ্যা ১০ লাখের মতো।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Calendar

May 2022
S M T W T F S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031