ক্লান্তিহীন ছায়া

প্রকাশিত: ১০:২৪ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০২০

ক্লান্তিহীন ছায়া

জোহরা রুবী
একটা ছায়ার সাথে পরিচয় সেই কবে থেকে,
বশীভূত করার মন্ত্রটায় লেপ্টে ছিলাম, আজও আছি
বদলেছে রূপ, বদলেছে চেহারার মানচিত্র আর হাসি
উথাল-পাথাল তারুণ্যে রংচটা স্বপ্নের ফাঁক গলে চুমু খেত সেই ছায়াটি
একগাদা প্রিয় জিনিস ছুঁড়ে দিয়ে উধাও!
সুখ সমুদ্রে হাবুডুবু গড়াগড়ি আর ছায়াটার মায়ায় বুদ হয়ে পূর্ণতার ঝোপে টুপ করে চুপ
খোলা চোখে সুনসান স্বপ্ন কুটিরে ঝিম মেরে নৈঃশব্দের বেলকনিতে সটান
ছায়াটার কায়ায় স্বতঃস্ফূর্তভাবে ক্রমাগত মমতারা জন্ম নেয়
ভরপুর মমতায় মাঝে মাঝে প্লাবিত হই,
ছায়াটিকে ঘিরে রাখি ঘূর্ণিঝড়ের মত মৌচাকের মতো
ছায়াটির কোমল হাতে একে একে জন্ম নেয় আমার মতো বশীভূত কায়ার দল
নির্বিঘ্নে ছুটে যায় তার শর্তহীন ভালবাসার বৃষ্টিতে
শীতল জলধারায়
তুমূল আনন্দে বন্ধনের স্রোতে
একদা ঝলমলে ছায়াটির ছোঁয়ায় আমি সহ চারপাশ ঝলমলিয়ে উঠত
ইদানীং
বয়ষ্ক ছায়াটি শিশুর হাসিতে বসত করে পুতুলের মত নড়েচড়ে, চমকে দেয়
ধমকে দেয় আশ্বাস দেয়
লেপ্টে থাকা কায়ার দলকে ক্লান্তিহীন ভাবে।

১৯.১১.২০২০