গর্ভপাতের হতাশায় আত্মহত্যা করেন জিয়া খান

প্রকাশিত: ১২:০৩ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১২, ২০১৫

গর্ভপাতের হতাশায় আত্মহত্যা করেন জিয়া খান
এসবিএন ডেস্ক:
বলিউড অভিনেত্রী জিয়া খানের মৃত্যুর  ঘটনাকে আত্মত্যা বলে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা। এ তদন্তে বলা হয়েছে, জিয়াকে আত্মহত্যা করতে প্ররোচিত করেন তার সাবেক প্রেমিক সুরজ পাঞ্চোলি। অভিযোগপত্রে বলা হয়, আত্মহত্যার সময় একটি চিঠি লিখে যান জিয়া। যা বিশ্লেষণ করে বোঝা গেছে, সুরজ তার জীবন ধ্বংস করে দিয়েছিলেন। তার কারণেই আত্মহত্যার পথ বেছে নেন জিয়া।  এতে আরও বলা হয়, সুরজ ও জিয়ার একে অপরকে লেখা কিছু চিঠি পাওয়া গেছে, যেগুলো থেকে জানা যায়, বাড়িতে গর্ভপাত ঘটিয়েছিলেন জিয়া আর সেজন্য তাকে চাপ দিয়েছিলেন সুরজ। গর্ভপাতের কারণে জিয়ার হতাশা আরও বেড়ে যায়। অভিনেতা আদিত্য পাঞ্চোলির ছেলে সুরজ জিয়াকে মারধর করেছেন এমন আলামত পাওয়া গেছে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে চার্জশিটে। এছাড়া আত্মহত্যার সময় জিয়া মদ্যপান করেছিলেন বলে এতে বলা হয়েছে । সিবিআই বলছে, জিয়ার লেখা তিন পাতার আত্মহত্যার চিঠিতে উঠে এসেছে সুরজের সঙ্গে তার সম্পর্ক, তার ওপর হওয়া শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের কথা। ২০১২ সালের সেপ্টেম্বর থেকে টানা ১০ মাস একই ফ্ল্যাটে থাকতেন তারা। এই সময়ে জিয়া ও সুরজের মধ্যে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এর ফলে সন্তানসম্ভাবা হন জিয়া।  উল্লেখ্য ২০১৩ সালের ৩রা জুন মুম্বাইয়ের জুহু এলাকায় নিজ বাসভবনে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় পাওয়া যায় জিয়াকে।