গার্মেন্টস্ সেক্টরে প্রণোদনা নিয়ে সরকারকে নতুন করে ভাবতে হবে

প্রকাশিত: ১০:০২ অপরাহ্ণ, মে ২০, ২০২০

গার্মেন্টস সেক্টরে টেক্সেশান ওয়েবার ও প্রণোদনা নিয়ে নতুন করে ভাবতে হবে বলে মন্তব‍্য করেছেন জাতীয় সংসদের সদস‍্য ইসরাফিল আলম এমপি। গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলন আয়োজিত অনলাইনে ” অনিশ্চিত জীবন-জীবিকা এবং শ্রমজীবী মানুষের বাজেট প্রত‍্যাশা” শীর্ষক আলোচনায় তিনিসহ ৫ জন প‍্যানেল আলোচক ও মুক্ত আলোচনায় অন‍্যান‍্য অংশগ্রহনকারীগণ তাদের মতামত দেন। বাজেট অধিবেশনের প্রক্কালে আজ বিকাল ৩ টায় এই সভা অনুষ্ঠিত হলো। অন‍্যান‍্য প‍্যানেল আলোচকরা হলেন সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি কমরেড রাজেকুজ্জামান রতন, আইএলও, সাউথ এশিয়া ডিসেন্ট ওয়ার্ক টিমের স্পেশালিস্ট অন ওয়ার্কার্স একটিভিটিস জনাব সৈয়দ সুলতানউদ্দিন আহমেদ, জনাব ড. কাজি মারুফুল ইসলাম, অধ‍্যাপক, ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং পরিচালক, সেন্টার অন বাজেট এন্ড পলিসি ও কর্মজীবী নারীর নির্বাহী পরিচালক রোকেয়া রফিক।

আলোচনায় ইসরাফিল আলম এম পি বলেন, বাংলাদেশের এতবড় শিল্পখাত, গত চল্লিশ বছর ধরে ব‍্যবসা করে আসছে। মাত্র একমাসের করোনা দুর্যোগে সরকারের সহায়তা ছাড়া শ্রমিকদের বেতন দিতে পারলোনা। সরকারের সব ধরনের সহায়তার পরও সরকারের কঠোর নিষেধ থাকা সত্ত্বেও শ্রমিক ছাটাই, লেঅফ, শ্রমিকদের বকেয়া পরিশোধ না করার মত ঘটনা ঘটেছে। মোবাইল ফোনে ডেকে শ্রমিকদের রাস্তায় নামিয়েছে। সরকারকে এই সেক্টরে প্রণোদনা ও টেক্সেশান ওয়েবারের নতুন করে বিষয়ে ভাবতে হবে। একক নয়, অন‍্যান‍্য শিল্প নিয়েও ভাবতে হবে।

কমরেড রাজেকুজ্জামান রতন বলেন, এতদিন বাজেট বিশ্লেষণ করেছি, এখন দরকার চিত্রটা তুলে ধরা। প্রয়োজনে প্রতিবাদ করা। আমরা চাই ভারসাম‍্যের বাজেট। মেগা প্রকল্প নয়, জোর দিতে হবে কৃষি, স্বাস্থ্য ও শ্রমজীবী শক্তিকে বাঁচিয়ে রাখার উপর। তিনি বলেন, জৌলুসের পরিবর্তে জনগণের দিকে দৃষ্টি এমন বাজেট দরকার। তিনি গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলনের উদ্দেশ‍্যে বলেন, বাজেট সম্পর্কে জনসচেতনতা তৈরী, জনমত গঠনের কাজ অব‍্যাহত রাখতে হবে। ধারাবাহিকতা রক্ষার আহবান জানান তিনি।

জনাব সৈয়দ সুলতানউদ্দিন আহমেদ বলেন 1972 সালের পর এই বাজেট একটা গুরুত্বপূর্ণ বাজেট। বিগত সময়ে এদেশে স্বাস্থ‍্যকে, জীবনকে পণ‍্যে পরিনত করা হয়েছে। এই বাজেটে লক্ষ‍্য হওয়া উচিৎ স্বাস্থ‍্যকে মুনাফার বাইরে রেখে অধিকার ও সেবা হিসেবে বিবেচনা করা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজের শিক্ষক ড. মারুফ বলেন, প্রাতিষ্ঠানিক শ্রমে নিয়োজিত শ্রমিকদের পাশাপাশি অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতে নিয়োজিত শ্রমজীবীদের সামাজিক নিরাপত্তার বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করতে হবে। তিনি বলেন, বরাদ্দ কত হলো এটি যেমন বিবেচনার বিষয়। বরাদ্দ অর্থ কিভাবে ব‍্যায় হচ্ছে সেটা ট্র‍্যাকিংও জরুরী। প্রতি তিনমাস অন্তর অন্তত দুপাতার একটা প্রতিবেদন তথ‍্য উপাত্তের ভিত্তিতে তৈরী করা প্রয়োজন। এই কাজটি গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলন করতে পারে।

প‍্যানেল আলোচক হিসেবে রোকেয়া রফিক বলেন, গ্লোবাল মার্কেটে মালিক শ্রমিক শুধু নয়, যারা বায়ার তাদেরকেও দায়িত্ব নিতে হবে। জবাবদিহিতার আওতায় আনতে হবে। সরকারকে এ বিষয়ে এবং মাইগ্রেন্ট ওয়ার্কারদের বিষয়ে বিশেষ ভুমিকা পালন করতে হবে।

গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ ও অংশগ্রহণকারীগণ মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন। তাঁরা বলেন, শ্রমজীবী মানুষের সামাজিক নিরাপত্তা সহায়তাকে রিলিফ বলা ও ভাবা যথার্থ নয়। কারণ এই শ্রমজীবী মানুষেরা ইকোনমিক একটর। তাদেরকে সরকার যা দিবে তা দান নয়, এটা তাদের দীর্ঘ দিনের আয়ের বিনিময়। সভায় 14 দফা বাজেট প্রস্তাবনা সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়।

অনলাইনে এই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক জনাব মোস্তফা মনোয়ার। সঞ্চালনায় ছিলেন সংগঠনের সহ-সভাপ্রধান আমান রহমান। মূল প্রস্তাবনা উপস্থাপন করেন সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জনাব সেকেন্দার আলী মিনা। তথ‍্য প্রযুক্তি ও ডকুমেন্টেশনে ছিলেন সংগঠনের তথ‍্য ও যোগাযোগ সম্পাদক জনাব নুরুল আলম মাসুদ।

ছড়িয়ে দিন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Calendar

December 2021
S M T W T F S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031