গেইলদের সমালোচনায় ক্লার্ক!

প্রকাশিত: ৯:৫১ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৫

গেইলদের সমালোচনায় ক্লার্ক!

এসবিএন ডেস্ক:

ক্রিস গেইল, ডোয়াইন ব্রাভো, ড্যারেন স্যামি, আন্দ্রে রাসেল, লেন্ডল সিমন্স, স্যামুয়েল বদ্রিরা খেলছেন বিগ ব্যাশ লিগে। অস্ট্রেলিয়ার টি-টোয়েন্টি আসর তাদের পকেটে বাড়তি টাকা এনে দিচ্ছে। কিন্তু তাদের দল ওয়েস্ট ইন্ডিজকে কি দিচ্ছে? এক রাশ হতাশা ছাড়া আর কিছুই না। এই খেলোয়াড়রা যদি টি-টোয়েন্টির লোভানীয় আকর্ষণের মাঝে জড়িয়ে না পড়তেন তাহলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ জাতীয় দলে খেলতে হতো। তাহলে এই সময়ে অস্ট্রেলিয়া সফরে থাকা ক্যারিবীয় দলের অংশই হতেন। টেস্ট খেলতেন। এখানেই হতাশা অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্কের। তার মতে, ক্রিকেটের বিশ্ব সংস্থার উচিৎ ক্লাব বনাম দেশের এই সঙ্কট কাটানোর জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা।

ক্লার্ক মনে করেন, খেলোয়াড়দের কাছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হওয়া উচিৎ। কিন্তু বাস্তবে দেখা যাচ্ছে অনেকে বৈশ্বিক টি-টোয়েন্টির কারণে দেশকে উপেক্ষা করছেন। “আমার মতে, গুরুত্বপূর্ণ হওয়া উচিৎ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট।” টেস্ট ক্যারিয়ারে ঘরোয়া টি-টোয়েন্টিকে খুব কমই গুরুত্ব দেয়া ক্লার্ক বলেছেন, “টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট গুরুত্বপূর্ণ। দেখতেও ভালো লাগে। কিন্তু আমি মনে করি দেশের প্রতিনিধিত্ব করার চেয়ে বড় কিছু হতে পারে না।”

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল অস্ট্রেলিয়া সফরে প্রথম টেস্টে বাজেভাবে হেরেছে। হোবার্টের হারটা তিনদিনের মধ্যেই। বক্সিং ডে টেস্ট পরেরটি। আছে নতুন বছরের টেস্টও। কিন্তু দর্শকদের তেমন আগ্রহ নেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ-অস্ট্রেলিয়া টেস্ট নিয়ে। ধারণা করা হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় টেস্ট বক্সিং ডে টেস্টেও দর্শক উপস্থিতি থাকবে খুব কম। যা গত ১৬ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম হতে পারে।

এসব ভেবেই ক্লার্ক বলছেন, “খেলোয়াড়রা এখানে বিবিএলে খেলছে। আমার কাছে এটা হতাশার। কারণ, তারা ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের অংশ নয়। অস্ট্রেলিয়ায় এমন কয়েকজন খেলছে যারা টেস্ট দলের অংশ হতে পারতো। এটা খেলা ও টেস্ট ক্রিকেটের জন্য হতাশার। এর পরিবর্তন দেখতে ভালো লাগবে আমার। আইসিসি ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড মিলে এর সমাধান করার চেষ্টা করতে পারে।” ক্লার্কের বিশ্বাস, টেস্ট শীর্ষ পর্যায়েই থাকবে। তবে এক্ষেত্রে ক্রিকেট কর্তৃপক্ষকে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ কিংবা বিগ ব্যাশ লিগের মতো আসরে শীর্ষ খেলোয়াড়দের খেলার সুযোগ দিতে হবে।