চট্টগ্রাম-১২ আসনে বিএনপি প্রার্থীদের মধ্যে এগিয়ে সৈয়দ সাদাত

প্রকাশিত: ১:০১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৮

চট্টগ্রাম-১২ আসনে বিএনপি প্রার্থীদের মধ্যে এগিয়ে সৈয়দ সাদাত

রনি আনসারী

চট্টগ্রাম-১২ (পটিয়া) আসন। প্রার্থী বাছাইয়ে বেকায়দায় পড়বে বিএনপি। দলের একাধিক নেতাই এবার মনোনয়ন চাইবেন । যাদের বেশিরভাগই আবার মাঠ পর্যায়ে সক্রিয়। এর মধ্যে আছেন দলের ব্যানারে নির্বাচিত সাবেক সাংসদ এবং উপজেলা পরিষদের বর্তমান ও সাবেক চেয়ারম্যান। জনপ্রতিনিধি হওয়ায় সাধারণ মানুষের সঙ্গে তাদের যোগাযোগের দাবিও আছে। তবে নানা দিক বিবেচনায় এগিয়ে আছেন দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি সৈয়দ সাদাত আহমেদ। সেখানকার সবচেয়ে শিক্ষিত ও মার্জিত নেতা তিনি । এ বি এন গ্রুপের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক । তিনি বলেন, বিএনপি নির্বাচনে গেলে অবশ্যই মনোনয়ন চাইবো। দল মনোয়ন দিলে আসনটি দেশনেত্রীকে উপহার দিতে পারবো।
প্রসঙ্গত, পটিয়া থেকে বিএনপির সাবেক কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য সৈয়দ সাদাত আহমেদের রাজনীতির সূচনা হয়। ধারাবাহিকভাবে দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ছিলেন তিনি। এছাড়া পটিয়া উপজেলা বিএনপি’র সদস্য এবং কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ছিলেন তিনি। তিনি চার মাস নিখোঁজ থাকার পর রাজনীতির কারনে গ্রেপ্তার বরন করেছিলেন ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বিএনপি নির্বাচনে গেলে দলের ছয়জন নেতা মনোনয়ন চাইবেন। এরা হচ্ছেন- দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সাংসদ গাজী মোহাম্মদ শাহজাহান জুয়েল, পটিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোজাফফর আহমেদ চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও সাবেক পটিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান ইদ্রিস মিয়া, দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি এনামুল হক এনাম, দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি সৈয়দ সাদাত আহমেদ এবং চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপি’র যুগ্ম সম্পাদক গাজী মো. সিরাজ উল্লাহ। এদিকে বিএনপি জোটবদ্ধভাবে অর্থাৎ ২০ দলীয়ভাবে নির্বাচন করলে পটিয়া আসনটি চাইবে শরীক দল এলডিপি। সেক্ষেত্রে সেখানে প্রার্থী হবেন এলডিপির কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য সম্পাদক এম এয়াকুব আলী।
প্রসঙ্গত, স্বাধীনতা পরবর্তী ১০টি সংসদ নির্বাচনে পটিয়া আসন থেকে সর্বোচ্চ পাঁচবার জিতেছেন বিএনপির প্রার্থী। তিনবার জিতে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে আওয়ামী লীগ। একবার করে জিতেছেন জাতীয় পার্টি ও ন্যাপ প্রার্থীরা।

১৯৭৩ সালের ৭ মার্চ প্রথম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসনে জয়লাভ করেছিলেন আওয়ামী লীগের নুরুল ইসলাম চৌধুরী। ১৯৭৯ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হন বিএনপির নজরুল ইসলাম। ১৯৮৬ সালের ৭ মে তৃতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হন ন্যাপের চৌধুরী হারুনুর রশীদ। ১৯৮৮ সালে চতুর্থ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়লাভ করেন জাতীয় পার্টির সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী। ১৯৯১ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি পঞ্চম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হন বিএনপির শাহনেওয়াজ চৌধুরী মন্টু। তিনি ১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি ষষ্ঠ সংসদ নির্বাচনেও বিজয়ী হন। একই বছর ১২ জুন সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও বিজয়ী হয় বিএনপি। আর প্রার্থী ছিলেন গাজী শাহজাহান জুয়েল। তিনি ২০০১ সালের পহেলা অক্টোবর অষ্টম সংসদ নির্বাচনেও বিএনপির টিকেটে নির্বাচন করে বিজয়ী হন। ২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসনে বিজয়ী হন আওয়ামী লীগের সামশুল হক চৌধুরী। ওই নির্বাচনে তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিএনপির গাজী শাহজাহান জুয়েল। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম সংসদ নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের টিকেটে নির্বাচন করে জয়লাভ করেন সামশুল হক চৌধুরী। তবে এ নির্বাচনে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে বিএনপি ও জামায়াতে ইসলামী অংশগ্রহণ করেনি।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

লাইভ রেডিও

Calendar

April 2024
S M T W T F S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930