ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করেছে শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ

প্রকাশিত: ২:০৭ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ৫, ২০২১

ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করেছে শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ

 

পংকজ কুমার নাগ

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে অসহায় ও ছিন্নমূল মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ, মিষ্টি বিতরণ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ সোমবার (৪ঠা জানুয়ারি) দুপুরে শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণে শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ এর পক্ষ থেকে সমাজের প্রায় দুই শতাধিক অসহায় ও ছিন্নমূল মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র ও মিস্টি বিতরণ করা হয়েছে। এসময় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ইতিহাস ও ঐতিহ্য এবং কলেজ ছাত্রলীগের বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল কান্তি দাশের সঞ্চালনায় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি সাইদুর রহমান সুজাত। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কলেজের প্রিন্সিপাল প্রফেসর সৈয়দ মোহাম্মদ মহসীন এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কলেজের শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুদর্শন চন্দ্র শীল প্রমুখ। আরো উপস্থিত ছিলেন শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজের ছাত্রলীগ শাখার বিভিন্ন পর্যায়ের দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দরা।

প্রসঙ্গত বাংলাদেশের বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলন ও সংগ্রামে বলিষ্ঠ নেতৃত্ব দানকারী ঐতিহ্যবাহী ছাত্রসংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ৪ঠা জানুয়ারি। বাংলা, বাঙালির স্বাধিকার অর্জনের লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশনায় ১৯৪৮ সালের ৪ঠা জানুয়ারি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের জন্ম হয়। উপমহাদেশের সর্ববৃহৎ ও প্রচীন ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের গৌরব, ঐতিহ্য, সংগ্রাম ও সাফল্যের ৭৩তম বার্ষিকী উপলক্ষে সবাইকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। সংগঠনটির ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী বর্ণাঢ্যভাবে পালন করতে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সংসদের পক্ষ থেকে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ তার দীর্ঘ রাজনৈতিক পরিক্রমায় ৫২’র ভাষা আন্দোলন, ৫৪’র প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচনে যুক্তফ্রন্টের বিজয়, ৫৮’র আইয়ুববিরোধী আন্দোলন, ৬২’র শিক্ষা আন্দোলন, ৬৬’র ৬ দফার পক্ষে গণঅংশগ্রহণের মাধ্যমে মুক্তির সনদ হিসেবে এই দাবিকে প্রতিষ্ঠা করে। এরপর ৬৯’র গণঅভ্যুত্থানের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে কারাগার থেকে মুক্ত করে আনা, ৭০’র নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ জয়লাভ এবং ৭১’র মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে পরাধীন বাংলায় লাল সবুজের পতাকার বিজয় ছিনিয়ে আনতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে।১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর মহান স্বাধীনতা অর্জনের পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশ পুনর্গঠনে অংশ নেয় ছাত্রলীগ। ছাত্রলীগ ৯০-এর স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে অনন্য ভূমিকা পালন করে।

ছড়িয়ে দিন