জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস মোকাবেলায় পুলিশের বিশেষ ইউনিট

প্রকাশিত: ৭:০১ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৫

জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস মোকাবেলায় পুলিশের বিশেষ ইউনিট

এসবিএন ডেস্ক:
জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় ৬০০ পুলিশ সদস্য নিয়ে একটি বিশেষ ইউনিট তৈরি করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ।

পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, দেশে ব্লগার, প্রকাশক, শিয়া, বিদেশি ও অমুসলিমদের ওপর হামলা বেড়ে যাওয়ায় ‘কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম’ নামের ইউনিটটি গঠন করা হয়।

পুলিশ সদর দপ্তরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ‘সন্ত্রাস প্রতিরোধ ব্যুরো’ তৈরিতে পুলিশের একটি প্রস্তাব কয়েক বছর আগেই করা হয়েছিল। ঐ প্রস্তাবটি পুলিশের সদর দপ্তর থেকে ২০১১ সালের আগস্টে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছিল। পরে এটি ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রলায় থেকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়।

আশা করা হচ্ছে, ‘দ্য কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম’ ইউনিট জানুয়ারি মান থেকে কাজ শুরু করবে। এরই মধ্যে সরকার সব ধরনের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেছে।

ঢাকা মহানগরের পুলিশ কর্মকর্তারা এই ইউনিটে কাজ করবেন। এছাড়া গোয়েন্দা পুলিশ এই ইউনিটকে সহায়তা করবে।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম-কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেছেন, সাইবার সন্ত্রাস, জঙ্গি অর্থায়ন ও মোবাইল ব্যাকিং সংক্রান্ত অপরাধের বিরুদ্ধে এই ইউনিট কাজ করবে।

একজন ডিআইজির নেতৃত্বাধীন ঐ ইউনিটে স্পেশাল উইপন্স অ্যান্ডস ট্যাকটিস (সোয়াত), বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিট ও ডগ স্কোয়াড এই ইউনিটে থাকবে।

ইউনিটে একজন অতিরিক্ত ডিআইজি, চারজন সহকারী কমিশনার, ১০ জন অতিরিক্ত ডেপুটি কমিশনার ও ২০ জন সহকারী কমিশনার থাকবে।

বাকিদের মধ্যে পরিদর্শক, উপপরিদর্শক, সহকারী উপপরিদর্শক ও কনস্টেবল থাকবে।

পুলিশ সদর দপ্তরের ডিআইজি আতিকুর রহমান বলেছেন, ডিএমপিতে সাত হাজার নতুন পুলিশ সদস্য যোগ হয়েছে। বিশেষ ইউনিটে কিছু নতুন পুলিশ সদস্যকেও নেয়া হতে পারে।

পুলিশের সূত্র জানিয়েছে, দেশ ও দেশের বাইরে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবিষয়ক তথ্য ও উপাত্ত সংগ্রহ করবে। এছাড়া তাদের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করে তাদের গ্রেফতার করবে।