জাত বিচার

প্রকাশিত: ৯:২৪ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১২, ২০২১

জাত বিচার

জাত বিচার

শ্যামসুন্দর সিকদার

ভোর হতে সন্ধ্যা যায় অসার-সংসারে
জটিল গণিত তার মিলাতে যে পারে
দিগন্তে চেনায় পথ দেবতা নতুন
দেবতারে করে তুষ্ট পূজার প্রসূন
কারুকাজ কত তার বুঝিতে কে পারে
বুঝিয়া শুনিয়া তবে পূজিবে যে তারে।
দৃষ্টির ভেতরে দেখি রোদের নাচন
প্রবাহের কাঁপা কাঁপা চলনে বাঁচন
জীবনে যেমন থাকে কপালে লিখন
মাঝে মাঝে তবু লাগে হৃদয়ে কাঁপন
হেঁটে যায় কত জন উদ্বিগ্ন সড়কে
অনায়াসে যায় ডুবে মনুষ্য-নরকে।
মেঘের আড়ালে থাকে সূর্য প্রভাতের
করিনা তো কোন ভয় অভিসম্পাতের।
ভালোবাসি নর-নারী – মানুষের মুখ
আরো বাসি ভালো আমি দুঃখীদের সুখ
কষ্টগুলো যায় শুধু দুঃখভরা ঘরে
উপেক্ষিতরা কেবল বারে বারে মরে
মরার পরেও মরে – এখানে ওখানে
দেখেছি তা পণ্ডিতের লেখা উপাখ্যানে।
ভয় কি এখন আর? কিসে অভিশাপ,
ভালোবাসি বললেই কি হয়ে যাবে পাপ?
দেখেছি অনেক কিছু – নিত্য অবিচার
রক্তের ভেতরে জাত করিনা বিচার ।
১১/৯/২০২১, ঢাকা।

ছড়িয়ে দিন