জিএম কাদের-এর বিরুদ্ধে অভিযোগ করলেন এরিক এরশাদ

প্রকাশিত: ৬:১৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ৮, ২০২১

জিএম কাদের-এর বিরুদ্ধে অভিযোগ করলেন এরিক এরশাদ

জাতীয় পার্টির প্রয়াত চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের ছেলে শাহাতা জারাব এরশাদ এরিক বলেছেন, আমার এবং আমার মা বিদিশা এরশাদের যদি কোনো ক্ষতি হয়, তাহলে এজন্য দায়ী থাকবেন  চাচা জিএম কাদের।

বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন এরিক এরশাদ। এসময় তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন জানান।

তিনি বলেন, আমার এবং মা বিদিশা এরশাদের বিরুদ্ধে চাচা জিএম কাদের কিছু মিথ্যা ও বানোয়াট নিউজ করাচ্ছেন। এসবের কারণে আমার ও মায়ের কিছু হলে একমাত্র দায়ী থাকবেন জিএম কাদের।

সংবাদ সম্মেলনে এরশাদ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান কাজী মামুনুর রশীদ বলেন, এরশাদ ক্ষমতায় থাকার পরও ২৭ বছর জীবিত ছিলেন। তিনি জীবিত থাকা অবস্থায় কেউ তার বিরুদ্ধে টাকা পাচারের অভিযোগ করেননি। তার বিরুদ্ধে যত মামলা হয়েছিল, প্রত্যেকটিতে তিনি নির্দোষ প্রমাণিত হয়েছিল। আজ তাকে নিয়ে ষড়যন্ত্র হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, কিছুদিন আগে আমরা প্রেস ক্লাবে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের একটি স্মরণ সভা করেছিলাম। সেই সভায় আমরা জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদেরের ব্যর্থতা নিয়ে কথা বলেছিলাম। যখনি আমরা পার্টির চেয়ারম্যানের ব্যর্থতা নিয়ে কথা বলেছি, তখনি কিন্তু এরশাদ, এরিক ও বিদিশাকে কেন্দ্র করে নিউজ করা হয়। জাপার ফেসবুক পেজ থেকে নিউজগুলোর প্রচার চালানো হয়। জাপা চেয়ারম্যানের ফেসবুক থেকেও নিউজগুলোর প্রচার চালানো হয়। জাপা ও সারাদেশের মানুষ বিশ্বাস করেন এসব নিউজ ও ষড়যন্ত্রের সঙ্গে দলের চেয়ারম্যান জিএম কাদের জড়িত।

দেশের একটি গণমাধ্যমে ‘পাসপোর্ট ও জন্মনিবন্ধনে বিস্ময়কর তথ্য: বিদিশার দুই পুত্রের জন্ম একদিনে, বাবা দুইজন!’ এই শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এই সংবাদ মিথ্যা দাবি করে সংবাদ সম্মেলন করে এরশাদ ট্রাস্ট।

প্রকাশিত সংবাদের প্রসঙ্গ টেনে মামুন বলেন, এই নিউজটি মিথ্যা। এটি জাপার চেয়ারম্যান ও তার বনানীর কার্যালয় থেকে সাপ্লাই  (যোগান) দেওয়া হয়েছে। আমরা এই নিউজের প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মামুন বলেন, এখন দেশে ‘লকডাউন’ চলছে। সাধারণ ভার্চুয়াল আদালতে মামলা করা যায় না। ফলে দেশের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আমরা এই গণমাধ্যমের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেব।

ছড়িয়ে দিন