ট্রিপল মার্ডার: জনপ্রতিনিধিদের আসামী করায় উত্তাল দিরাই

প্রকাশিত: ৯:৫৫ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ৩১, ২০১৭

ট্রিপল মার্ডার: জনপ্রতিনিধিদের আসামী করায় উত্তাল দিরাই

মুজাহিদুল ইসলাম সর্দার, দিরাই (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ 

গত ১৭ জানুয়ারি দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নের জারলিয়া জলমহাল দখল কে কেন্দ্র করে ইজারাদার ধনঞ্জয় দাস ও স্থানীয় প্রভাবশালী একরার হোসেনের পক্ষের লোকজনের মাঝে সংঘর্ষে ৩ জন নিরীহ লোক নিহত হওয়ার ঘটনায় ষড়যন্ত্রমূলক দিরাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান তালুকদার, পৌর মেয়র মোশাররফ মিয়া, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ রায়, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল মিয়া ও ছাত্রলীগ নেতা তাজবির মিয়া কে আসামী করার প্রতিবাদে বিভিন্ন ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে উত্তাল হয়ে পড়েছে দিরাই শহর। গতকাল সোমবার বেলা ৩ টায় দিরাই থানা পয়েন্ট চত্বরে উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ কে আসামী করার প্রতিবাদে বিশাল সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আছাব উদ্দিন সরদারের সভাপতিত্বে ও দপ্তর সম্পাদক বিকাশ রায়, পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল মিয়ার যৌথ পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি এডভোকেট সোহেল আহমদ, সিরাজদ্দৌলা তালুকদার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লুৎফুর রহমান এওর, সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডভোকেট অভিরাম তালুকদার, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আতাউর রহমানের, আওয়ামী লীগ নেতা হাবিবুর রহমান তালুকদার, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রঞ্জন কুমার রায়,ইউপি চেয়ারম্যান এহসান চৌধুরী, শিবলী বেগ,শাহ জাহান কাজী,রেজুয়ান খান,দিরাই পৌরসভার প্যানেল মেয়র বিশ্বজিৎ রায় বিশ্ব,উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী জবা রানী, উপজেলা কৃষক লীগের আহবায়ক তাজুল ইসলাম, উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ চৌধুরী, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম প্রমুখ। সমাবেশে বক্তারা বলেন আজকের জনসমুদ্রে পরিনত সমাবেশই প্রমাণ করে নেতৃবৃন্দের জনপ্রিয়তা, জলমহাল দখল কে কেন্দ্র স্থানীয় দুই পক্ষের সংঘর্ষে ৩ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় প্রকৃত আসামীদের আড়ালে রেখে রাজনৈতিক প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ কে আসামী করা হয়েছে, অবিলম্বে হত্যা মামলা কে তাদের নাম প্রত্যাহার না করলে দিরাই উপজেলা আওয়ামীলীগ আরো কঠোর আন্দোলনে ডাক দিতে বাধ্য হবে।