ঢাকা ১৪ই জুলাই ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই মহর্‌রম ১৪৪৬ হিজরি


ঢাকা শহরের যানজট উন্নয়নের চ্যালেঞ্জ; ঢাবি উপাচার্য

redtimes.com,bd
প্রকাশিত মে ২৭, ২০১৯, ১২:৫৮ পূর্বাহ্ণ
ঢাকা শহরের যানজট উন্নয়নের চ্যালেঞ্জ; ঢাবি উপাচার্য

ঢাকা শহরের যানজট উন্নয়নের চ্যালেঞ্জ; ঢাবি উপাচার্য
সাদ্দাম হোসেন

ঢাকা শহরের যানজটকে উন্নয়নের চ্যালেঞ্জ আখ্যা দিয়ে তা হাসিমুখে মেনে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন ঢাবি (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়) উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান। রবিবার (২৪শে মে) বিকেলে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু পরিষদের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠানে যানজট সম্পর্কে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

এব্যাপারে অধ্যাপক আখতারুজ্জামান আরো বলেন, “আজকের বাংলাদেশ যে অবস্থানে আছে, আজকে আপনি রাস্তায় আসলে যে এক দুই- ঘণ্টা আপনার দেরি হচ্ছে, এগুলো কী জানেন? এগুলো হল চীন-জাপান আজকের যে অবস্থানে এসেছে অথবা ইউরোপ এবং আমেরিকা যে উন্নত বিশ্ব যাদের কথা বলি, তারা যে অবস্থায় আছে, তাদেরও এমন একটি সময় ছিল।”

“আজকে আমরা যে অবস্থায় আছি তারাও সেই অবস্থায় ছিল। এগুলোকে অর্থনীতির ভাষায় এবং সমাজবিজ্ঞানীর ভাষায় বলা হয়, চ্যালেঞ্জ অব ডেভেলপমেন্ট। একারণে এগুলো আমরা হাসিমুখে নেব।”

এই ‘চ্যালেঞ্জ অব ডেভেলপমেন্ট’ সম্পর্কে মানুষকে জানানোর তাগাদাও অনুভব করছেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, “এই বিষয়গুলো কিন্তু এখন মানুষকে বলা দরকার। কেননা এই সুবাদে কিছু কিছু রাজনৈতিক অপশক্তি আছে, কিছু কিছু মানুষ আছে যারা একটি অপপ্রয়াস থেকে এই যে মানুষের এতো ভোগান্তি এগুলো ব্যাখ্যা করার চেষ্টা করবে।”

“কিন্তু আজকে আপনি চীন-জাপানের অবস্থা যদি দেখেন আজ থেকে ৪০-৫০ বছর পূর্বে, যারা এই দেশগুলোতে গেছেন, আমাদের অনেক মুরুব্বিরা গেছেন তখন তারা একপ্রকার কথাগুলো বলে থাকেন যে, ওই সময় তাদেরও ভোগান্তির কোনো শেষ থাকে নাই।”

“কিন্তু আজকে যখন আমরা সেখানে যাই মনে হয় যেন আমরা একটা ভিন্ন গ্রহে আসলাম, একটি ভিন্ন জগতে আসলাম।”

এই সভ্য সমাজের ভৌত অবকাঠামো নির্মাণের আগে তাদেরও কঠিন অবস্থার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

“আমরা কিন্তু সেই ধরনের একটি অবস্থায় পদার্পণ করছি। আমরা একটি লাল কার্পেটে কেবল পা রাখব- সেই অবস্থানে আছি,” বলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য।

অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ডা. এস এ মালেক সভাপতিত্ব করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

July 2024
S M T W T F S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031