নবজাতক হত্যার দায়ে গৃহবধূর মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিত: ১১:৫৩ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২১, ২০১৬

নবজাতক হত্যার দায়ে গৃহবধূর মৃত্যুদণ্ড

এসবিএন ডেস্ক: নবজাতক হত্যার দায়ে সাতক্ষীরায় রিজিয়া খাতুন (২৫) নামে এক নারীকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সাতক্ষীরার অতিরিক্ত জেলা জজ আদালতের বিচারক শরীফ এ এম রেজা জাকের এই আদেশ দেন।

একই মামলায় কাশেম কাপালী নামে আরেক আসামিকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত রিজিয়া খাতুন আদালত থেকে জামিন পাওয়ার পর থেকে পলাতক রয়েছেন। তিনি কালিগঞ্জ উপজেলার রহিমপুর গ্রামের আব্দুল মাজেদ গাজীর মেয়ে।

সাতক্ষীরা আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট ওসমান গনি জানান, ২০১০ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি কালিগঞ্জের রহিমপুর গ্রামের আব্দুস সাত্তারের পুকুর পাড় থেকে এক নবজাকতের মৃতদেহ উদ্ধার হয়। এ ঘটনায় এলাকাবাসী অভিযোগ করেন, ওই গ্রামের আব্দুল মাজেদ গাজীর মেয়ে রিজিয়া খাতুনের সঙ্গে একই উপজেলার পাশের গ্রাম পাইকাড়ার বাবু কাপালীর ছেলে কাশেম কাপালীর সাথে অবৈধ সম্পর্কের কারণে ওই নবজাতকের জন্ম হয়।

তিনি জানান, প্রথমে অপমৃত্যু মামলা হলেও ময়না তদন্তে ওই নবজাতককে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রতিবেদন দেওয়া হয়। পরে মামলাটি হত্যা মামলায় রূপান্তর হলে পুলিশ রিজিয়া খাতুন ও কাশেম কাপালীকে গ্রেফতার করে।

এ মামলায় রিজিয়া খাতুন আদালত থেকে জামিন নিয়ে পালিয়ে যান। পরে ১৪ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ ও নথি পর্যালোচনা করে আদালত পলাতক রিজিয়া খাতুনকে দোষী সাব্যস্ত করে বৃহস্পতিবার ফাঁসির আদেশ দেন। একই সাথে তাকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

আরেক আসামি কাশেম কাপালীর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ না হওয়ায় তাকে খালাস দেন আদালত।