পবিত্র কুমার রায়কে অবিলম্বে মুক্তি দেয়া হোক

প্রকাশিত: ১০:৩১ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৫, ২০২১

পবিত্র কুমার রায়কে অবিলম্বে মুক্তি দেয়া হোক

লালমনিরহাটের, কালীগঞ্জ তালুক শাখাতী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পবিত্র কুমার রায় তার নিজস্ব ফেসবুক আইডিতে ঈদের দিনে একটা ষ্ট্যাটাস দিয়ে লিখেছেন, “নির্বোধের আর্তনাদ’ পশু হত্যা করে ওরা কিভাবে উত্তম হতে পারে। উত্তম প্রাণীরাই আজ পৃথিবী ধ্বংসের মুল কারণ ওরাই দুষণ করেছে, ধ্বংস করেছে আর ভাবছে ওরাই উত্তম”

 

বিষয়টি ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পর পোস্টটি তিনি রিমুভ করে ক্ষমা চেয়ে আরও একটি পোস্ট দেন। তারপরও তাকে গ্রেফতার কেন? এটা তার একটা মত। মানুষ মত প্রকাশ করবে না? সত্য বললে কারো মনে আঘাত লাগলে আপনি সেটা মিথ্যা প্রমাণ করেন, গ্রেফতার কেন? হিন্দু হলে গ্রেফতারটা দেখছি দ্রুত হয়। হিন্দু বলে মত প্রকাশ করা যাবে না?

 

একদিনে এক কোটি পশু জবাই করে তো উৎসব করছেন, তাতে কেউ তার মানবিকতা থেকে নিজের মত প্রকাশ করলে আপনি ক্ষেপেন কেন? সঠিকটা করছেন না বলে? আপনার উৎসব আপনি করছেন, করেন, তার বলা সে বলছে বলুক, একজন অখ্যাত কেউ লিখলে উৎসব বন্ধ হয়ে যায়? সত্য কি কচুপাতার পানি? সব মতের সাথে তো সবাই একমত হবে না। ৫০ এর দশকে কলকাতায় “যমালয়ে জীবন্ত মানুষ” সিনেমা করে ভগবানের কি ডাইরেক্ট সমালোচনা, ভগবান তো কিছু বলেনি, তার অনুসারীরাও পুজা বন্ধ করেনি, জবাবও দেয়নি, ধর্মের কীর্তনও কমেনি। এখানে প্রতিটা বিষয় এত অনুভুতি প্রবন কেন?

 

মত প্রকাশে একটা রাষ্ট্রে এর চেয়ে সিরিয়াস কথাও হয়, তারজন্য কেবল মামলা, হিন্দু  সম্প্রদায় হলে একটু দ্রুত গ্রেফতার, এসব সীমাহীন হচ্ছে। হুমকি ধামকী তো আছেই।

 

প্রাচীন রোমে সম্রাট অগাস্টাস সিজারকে খুব খারাপ ভাষায় সমালোচনা করতো বেনামী লেখকরা। সম্রাট তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নিতেন না। একটা ফরমান জারি করেন, তোমার মতের সাথে একমত না হতে পারি, তোমার বলার অধিকার বন্ধ করবো না। কেবল তুমি যে লিখ সে লেখার নীচে তোমার  নাম লিখে দিতে হবে। সে সম্রাট ইতিহাসে সেরা হয়ে আছে।

 

কথায় কথায় মামলা জিডি কেন হবে। লেখক, দার্শনিক, বিশ্লেষক সব মানুষের মনকে আন্দোলিত করতেই তো লিখবে। পানিতে নামবো, পানি নড়বে না, এটা তো বুদ্ধি বৃত্তিক চর্চা বন্ধ হয়ে একটি বোকা জাতির জন্ম নিবে।
কারো বিশ্বাসে আঘাত না দিলে উত্তম কিছু হয় না। ইসলামও সে সময়ে কথিত কাফেরদের বিশ্বাসে আঘাত দিয়েই প্রতিষ্ঠা পায়। এখন ধর্ম নিয়ে ব্যবসা বন্ধ করতে ধর্মকে পরিশোধন করতে, জাতি সময়ে সময়ে সঠিক দিক নির্দেশনা পেতে মত প্রকাশে সকল বাধা দুর করতে হবে। যুক্তির সত্য হারিয়ে যাবে না।

পবিত্র কুমার রায়কে অবিলম্বে মুক্তি দেয়া হোক।

লেখক-  সরদার আমিন, প্রকৌশলী ও লেখক 

ছড়িয়ে দিন