পরিবেশ ও প্রকৃতি রক্ষায় গণমাধ্যমের ভূমিকা অনন্য ঃ তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ১১:৩৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৬, ২০১৯

পরিবেশ ও প্রকৃতি রক্ষায় গণমাধ্যমের ভূমিকা অনন্য ঃ তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, পরিবেশ ও প্রকৃতি রক্ষা সচেতনতায় গণমাধ্যমের ভূমিকা অনন্য ।
নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে দু’দিনব্যাপী আয়োজিত এশীয়-প্রশান্ত আঞ্চলিক সম্প্রচার সংগঠন ‘এশিয়া-প্যাসিফিক ব্রডকাস্টিং ইউনিয়ন (এবিইউ)’এর পঞ্চম শীর্ষ সম্মেলনে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বাংলাদেশ প্রতিনিধি এবং পরিবেশ বিশেষজ্ঞ হিসেবে সম্মেলনের সমাপনী দিন আজ বিকেলে তার বক্তব্যে একথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা নিজেরাই আজ পরিবেশ ধ্বংসের কারণ হয়ে নিজেদের অস্তিত্বকে সংকটাপন্ন করছি। জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলা ও দুর্যোগ প্রশমনে গণমাধ্যম মানুষকে নতুনভাবে সচেতন করতে ভূমিকা নেবে।’
সম্মেলন শেষে সর্বসম্মতিক্রমে কাঠমান্ডু মিডিয়া একশন প্লান গৃহীত হয় যা আগামী দুর্যোগ হ্রাস বিশ্বসভার আলোচ্যসূচিতে অন্তর্ভুক্ত হবে।
পরিবেশ বিষয়ে বেলজিয়াম থেকে পিএইচডি ডিগ্রির অধিকারী ড. হাছান মাহমুদ এর আগে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নেপালের প্রধানমন্ত্রী খড়গ প্রসাদ শর্মা অলির সাথে তার দপ্তরে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন।
প্রধানমন্ত্রী কেপি অলি এসময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানান এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অগ্রগতির ভূয়সী প্রশংসা করেন।
এসময় দুই নেতার মধ্যে অত্যন্ত আন্তরিক পরিবেশে বাণিজ্য ও গণমাধ্যমখাতে সহযোগিতা, নেপালের জলবিদ্যুৎ প্রকল্প থেকে যৌথ সুবিধা গ্রহণ ছাড়াও বিভিন্ন স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা হয়।
নেপালে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মাশফি বিনতে শামস, বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালক এস এম হারুন-অর-রশিদ ছাড়াও দূতাবাসের কর্মকর্তারা এসময় মন্ত্রীর সাথে ছিলেন।