পহেলা বৈশাখ”বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানালেন অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল

প্রকাশিত: ২:১৪ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১৪, ২০২৪

পহেলা বৈশাখ”বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানালেন অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল
কপিল দেব:

পহেলা বৈশাখ বাংলা নববর্ষ-১৪৩১ বাংলা উপলক্ষে সিলেটবাসীসহ সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্টারভেনশনাল হেপাটোলজি ডিভিশনের প্রধান ও সম্প্রীতি বাংলাদেশ এর সদস্য সচিব অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে সিলেট-১ আসনের সর্বস্তরের জনগণ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, হেপাটোলজি ডিভিশনের চিকিৎসবৃন্দ, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, কর্মচারীসহ সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও শুভকামনা জানিয়েছেন।

শুভেচ্ছা বাণীতে অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল বলেন ‘জাগতিক নিয়মের পথ-পরিক্রমায় বছর শেষে আমাদের মধ্যে আবার এসেছে নতুন বছর-১৪৩১ বঙ্গাব্দ। সবাইকে নতুন বছরের আন্তরিক শুভেচ্ছা ও শুভকামনা। শুভ নববর্ষ।’

অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল বলেন এ ভূখণ্ডের হাজার বছরের ঐতিহ্য, সংস্কৃতি এবং কৃষ্টির বাহক এ দেশের বাঙালি জনগোষ্ঠী। বিভিন্ন ধর্মে-বর্ণে বিভক্ত হলেও ঐতিহ্য ও কৃষ্টির জায়গায় সব বাঙালি এক এবং অভিন্ন। নানা ঘাত-প্রতিঘাতে অনেক ঐতিহ্য হারিয়ে গেলেও পয়লা বৈশাখে নববর্ষ উদযাপন এখনো স্বমহিমায় টিকে আছে। সারা বছরের ক্লেদ-গ্লানি, হতাশা ভুলে এদিন সব বাঙালি নতুন আনন্দ-উদ্দীপনায় মেতে ওঠেন। ‘‘এসো হে বৈশাখ, এসো এসো/ মুছে যাক গ্লানি, ঘুচে যাক জরা/ অগ্নিস্নানে শুচি হোক ধরা”—কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কালজয়ী এই গান গেয়ে আমরা আবাহন করি নতুন বছরকে।’

গণমাধ্যমে পাঠানো এক বার্তায় এ শুভেচ্ছা জানান তিনি।

পয়লা বৈশাখের বর্ষবরণকে বাঙালির সর্বজনীন উৎসব আখ্যা দিয়ে অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল
বলেন, ‘আবহমানকাল ধরে বাংলার গ্রাম-গঞ্জে, আনাচে-কানাচে এই উৎসব পালিত হয়ে আসছে। গ্রামীণ মেলা, হালখাতা, বিভিন্ন ধরনের খেলাধুলার আয়োজন ছিল বর্ষবরণের মূল অনুষঙ্গ। ব্যবসায়ীরা আগের বছরের দেনা-পাওনা আদায়ের জন্য আয়োজন করেন হালখাতা উৎসবের। গ্রামীণ পরিবারগুলো মেলা থেকে সারা বছরের জন্য প্রয়োজনীয় তৈজসপত্র কিনে রাখতেন। গৃহস্থ বাড়িতে রান্না হতো সাধ্যমতো উন্নত মানের খাবার।’ সকল সংকীর্ণতা, কূপমণ্ডূকতা পরিহার করে উদারনৈতিক জীবনব্যবস্থা গড়ে তুলতে পয়লা বৈশাখ আমাদের অনুপ্রাণিত করে। মনের ভেতরের সকল ক্লেদ, জীর্ণতা দূর করে আমাদের নতুন উদ্যমে বাঁচার শক্তি জোগায়, স্বপ্ন দেখায়। আমরা যে বাঙালি, বিশ্বের বুকে এক গর্বিত জাতি, পয়লা বৈশাখের বর্ষবরণের মাধ্যমে আমাদের মধ্যে এই স্বাজাত্যবোধ এবং বাঙালিয়ানা নতুন করে প্রাণ পায়, উজ্জীবিত হয়।’ বাঙালি সংস্কৃতি সারা বিশ্বেই ছড়িয়ে যাচ্ছে আজ শুধু দেশে নয়, বিশ্বের যে প্রান্তেই বাঙালি তাঁর বসবাস গড়ে তুলেছেন, সেখানেই বাঙালির হাজার বছরের লোক-সংস্কৃতিকে বয়ে নিয়ে গেছেন এবং যাচ্ছেন।

বর্ষবরণসহ নানা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে তাঁরা জানান দেন, তাঁরা বাঙালি। আর এর মাধ্যমেই পৃথিবীজুড়ে তৈরি হচ্ছে বাঙালি সংস্কৃতির সঙ্গে অন্য সংস্কৃতির সেতুবন্ধ।’ নববর্ষে বাঙালি অসাম্প্রদায়িক চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে একটি সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল বলেন ‘পারস্পরিক সৌহার্দ্য আর ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে আসুন, বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে একটি উন্নত-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করি। যেখানে বৈষম্য থাকবে না, মানুষে মানুষে থাকবে না কোনো ভেদাভেদ, থাকবে না ধর্মে-ধর্মে কোনো বিভেদ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি উন্নত, সমৃদ্ধ, অসাম্প্রদায়িক ও মানবিক সমাজ প্রতিষ্ঠায় স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মানে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।বাংলা নববর্ষে প্রতিফলন হোক, এই কামনা করছি।পহেলা বৈশাখ বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা ও শুভকামনা।

লাইভ রেডিও

Calendar

May 2024
S M T W T F S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031