পাপিয়ার কারণে ঝামেলায় পড়ে গেছেন অনেক নেতা

প্রকাশিত: ১১:৩৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২০

পাপিয়ার কারণে  ঝামেলায়  পড়ে গেছেন অনেক নেতা

আওয়ামী যুব মহিলা লীগের সদ্য বহিষ্কৃত নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়ার কারণে ঝামেলায় পড়ে গেছেন অনেক নেতা । জমজমাট নারী ব্যবসাসহ ভয়ঙ্কর সব অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে এখন পাপিয়া। রাজনীতির আড়ালে অস্ত্র, মাদক ও দেহব্যবসা করে বিশাল সম্পদের মালিক বনে যান তিনি। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, অপরাধ করে কেউ পার পাবে না।
তিনি বলেন, দলীয় নেতা-কর্মীদের শাস্তি দেয়ার সৎ সাহস একমাত্র আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনারই রয়েছে, অপরাধ করে কেউ পার পাবে, এটা ভাবার কোনো কারণ নেই।
রাজধানীর সেতু ভবনে আজ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ এলিভেটেড এক্সপ্র্রেসওয়ে (পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ) প্রকল্পের চুক্তি সই অনুষ্ঠানে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, আমাদের কাছে তথ্য ছিল পাপিয়া অপকর্ম করছে। এ কারণে র‌্যাব পাপিয়াকে গ্রেফতার করেছে।পাপিয়ার অপকর্মের সঙ্গে যারা জড়িত থাকবে, তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।
তিনি বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় থাকতে তাদের দলের নেতা-কর্মীরা লুটপাট ও দুর্নীতি করেছে, কিন্তু কোনো অপকর্মের জন্য কারো শাস্তি হয়েছে, এমন নজির নেই। সেতুমন্ত্রী বলেন, যে কোন বিষয়ে অভিযোগ করা বিএনপির স্বভাব, এটাই তাদের রাজনীতি।
নরসিংদী জেলার যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে ছিলেন শামীমা নূর পাপিয়া। অনৈতিক কর্মকান্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে যুব মহিলা লীগ থেকে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি তাকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করে কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগ।
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক জানান, যুব মহিলা লীগের কমিটির মেয়াদ শেষ মার্চে, মেয়াদ শেষ হলে সম্মেলন হবে। সন্মেলনের কাজ চলমান উল্লেখ করে তিনি বলেন, কাউন্সিল করে নতুন কমিটি গঠিত হবে।
গত শনিবার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে জাল টাকা বহন ও অবৈধ টাকা পাচারের অভিযোগে শামিমা নূর পাপিয়াসহ চারজনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১। গ্রেফতারকৃত অন্যরা হলেন- পাপিয়ার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরী ওরফে মতি সুমন (৩৮), সাব্বির খন্দকার (২৯) ও শেখ তায়্যিবা (২২)।

গ্রেফতার চারজনকে সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। এসময় তিন মামলায় পাপিয়া ও সুমনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৩০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করে পুলিশ। মেট্রোপলিটন ম্যজিস্ট্রেট মাসুদুর রহমানের আদালতে এক মামলায় ৫ দিন ও মেট্রোপলিটন ম্যজিস্ট্রেট জসীম উদ্দিন দুই মামলায় ১০ দিন রিমান্ড মঞ্জুর করেন। অর্থ্যাৎ তিন মামলায় দুইজনের ১৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আর অন্য দুই আসামি সাব্বির খন্দকার ও শেখ তায়্যিবাকে এক মামলায় ৫ দিন করে রিমান্ড দেন আদালত।

আদালতে পাপিয়া সালোয়ার কামিজ পরে এসেছিলেন। তার মাথায় ওড়না ছিল। আদালতে শুনানি চলাকালে পাপিয়া ও সুমন নিশ্চুপ ছিলেন। কিন্তু শুনানি শেষে বের হওয়ার সময় স্বামীকে লক্ষ্য করে অনুচ্চ স্বরে বলেন ‘আমার লাইফটাই শেষ’।

ছড়িয়ে দিন

Calendar

December 2021
S M T W T F S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031