প্রকৃতিকে প্রতিপক্ষ করব না

প্রকাশিত: ১:১১ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৬, ২০২০

প্রকৃতিকে প্রতিপক্ষ করব না

শর্মিলা দেব

করোনা ভাইরাস বর্তমান পৃথিবীতে এক আতঙ্কের নাম।কিন্ত আতঙ্ক নিয়ে তো মানুষ বেশীদিন সুস্হভাবে বেঁচে থাকতে পারে না।ঘরে থেকে থেকে মানুষ আরো বেশী মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়ছে।কিন্ত ঘরে তো থাকতেই হবে,এছাড়া যে বাঁচার উপায় নেই।কিন্ত ঘরে থাকলেই যে বাঁচব, তার গ্যারান্টি কে দেবে?আমাদের গরীব দেশ,তার উপরে বিশৃঙ্খলার চুড়ান্ত-তার উপরে দায়িত্বহীন কথাবার্তা,মানুষ ক্লান্ত দেহে এবং মনে।আমার ছেলে এসে জানাল-মা,আমরা প্রথম হয়েছি।আমি এই খারাপ সময়ে খুশী হয়ে বললাম-কিসে?বলে তার দিকে তাকিয়ে দেখি চোখ জলে ভরা-মা,সিলেটের প্রথম আক্রান্ত ডাঃ মঈন মারা গেছেন।আমরা প্রথম হয়েছি মা। আমরা চুপ করে বসে থাকলাম।প্রথম হলে মানুষ আনন্দিত হয়,করোনা আমাদের সেই বিশ্বাস ভেঙ্গে দিল।আমরা এমন মৃত্যুতে মর্মাহত।আমরা আর এমন অকাল মৃত্যু চাই না।তাই আসুন অন্যান্য দূর্যোগ মূহুর্তে যেমন আমরা নিজেদের রক্ষা নিজেরাই করেছি,তেমনি আবার নিজেদের রক্ষা নিজেরাই করব।(১)কোনভাবেই ভয় পাব না।(২)সকালে ঘুম থেকে উঠে গরম জলে লেবু চিপে খাব।(৩)গরম জলে গার্গল করব।(৪)বর্তমানের স্বাস্হ্যসেবা মেনে চলব।আমরা করোনা হলে কি করব চিন্তা না করে আমরা করোনা যাতে না হয়,সে চেষ্টা করব। আসুন আমরা প্রকৃতির দিকে মনোযোগ দিই।দুই/তিন বছর যাবৎ আমরা প্রকৃতিতে কিছু অদল-বদল দেখছি,কিন্ত কয়েক মাস হল যা দেখছি অবিশ্বাস্য!আমি আমার ফুল গাছ গুলোর কথাই বলি।ফাল্গুন বসন্তের সব ফুল এখন ফুটে শীতে।কয়েকদিন আগে ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের ঝুমুর ছবিসহ লিখল তার বাগানে গন্ধরাজ ফুটেছে,আমি অবাক হলাম এটাতো বর্ষার ফুল,এখন কিভাবে ফুটবে!আমার বাসার গন্ধরাজ ফুটে না দেখে বাসার পিছনে ফল বাগানের কোনায় লাগানো হয়েছে,কখনো কখনো কোন বছর ইচ্ছে হলে বর্ষায় ফুটে।এখন প্রচুর সময় থাকায় আমার স্বামী টিভির খবর আর গাছপালা নিয়ে পড়ে আছে,দোতালা ছাদ থেকে সেদিন চিৎকার করে বলল-তোমার প্রিয় ফুল ফুটেছে।আমরা সবাই দৌড়ে গেলাম,সবুজ পাতার ফাঁকে পাঁচটি গন্ধরাজ!পরদিন তেরটি।অবিশ্বাস্য!বর্ষার সব সাদাফুল সুগন্ধযুক্ত হয়-দোলনচাঁপা,গন্ধরাজ,বেলী,কামিনী,হাসনাহেনা,লিলি সব বর্ষার ফুল। আমার বাসায় অসময়ে বেলী ফুলও প্রচুর ফুটছে।তবে প্রকৃতি রাশটা নিজের হাতেই রেখেছে । কোন ফুলেই গন্ধ নাই।এখন বুগানভেলীয়া যাকে কাগজ ফুলও বলে-অন্য সময় আমার বাসায় প্রচুর হয়,এখন বাসন্তি রং ছাড়া আর কোন রং ফুটে নাই।বাগান খাখা করছে।প্রকৃতি আপন খেয়ালে মেতেছে।এতদিন মানুষ যা ইচ্ছা তাই করেছে,এবার প্রকৃতি শোধ নিচ্ছে।এরপরেও আমরা মনোবল হারাব না।করোনা ভাইরাস পরাজিত হবেই,তবে আমরা চলাফেরায় সাবধান হব-প্রকৃতিকে প্রতিপক্ষ করব না।

ছড়িয়ে দিন