প্রেম, জীবন ও রাজনীতির কবি সৌমিত্র দেব: শুভ জন্মোৎসব

প্রকাশিত: ১:০৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩, ২০২২

প্রেম, জীবন ও রাজনীতির কবি সৌমিত্র দেব: শুভ জন্মোৎসব

 

মোস্তফা মোহাম্মদ

 

 

 

প্রেম ও প্রত্যাশার কবি, জীবন ও রাজনীতির কবি, সাম্য ও সৌহার্দ্যের কবি সৌমিত্র দেব বায়ান্নো পেরোলেন ২৭ জুলাই ২০২২।

কবিকে বয়সে মাপা যায় না, মাপা উচিতও নয়। মাপতে হয় তার কর্মে–দশক বিভাজনে তো নয়ই, সাহিত্যের আবার দশক কিসের? সাহিত্য চিরকালীন সত্যম, শিবম, সুন্দরম। আধুনিকতার প্রবর্তক মাইকেল মধুসূদন দত্ত যদি আধুনিক হন, তবে রবীন্দ্রনাথ কী অনাধুনিক? জীবনানন্দীয় রহস্যের জালবিস্তারী পঞ্চপাণ্ডবকে কী অভিধায় অভিসিক্ত করবো আমরা?
আসলে দশক-বিভাজন, কিংবা বয়স-মাপন ব্যাপারটির মধ্যে কাব্যিকতা নয়, নিজস্ব গণ্ডিবদ্ধ পরিবেশ-প্রতিবেশসহ কাব্যিকভাবে বেঁচে থাকার প্রণোদনাই খুঁজে পাওয়া যায়। এর ভেতরে কাব্যচিন্তা কতটুকু আছে তা আমার জানা নাই, তবে বলয়বদ্ধ গূঢ়-চেতনাই প্রজ্জ্বলিত হয়।

 

মধুসূদন, রবীন্দ্রনাথ, নজরুল, পঞ্চপাণ্ডব, হাসান হাফিজুর রজমান,শামসুর রাহমান, আল মাহমুদ, সৈয়দ শামসুল হক, আবুল হাসান, রফিফ আজাদ, মোহাম্মদ রফিকসহ আজকের দিন পর্যন্ত যারা লিখছেন তারা আসলে কবিতাই লিখছেন, ভালো কবিতা লিখছেন। আমার মতো সাধারণ পাঠকের পক্ষে দশক-কালিক-মহাকালিক কবিতার বিচার সম্ভব নয়। বাংলাদেশের কবিতা, পশ্চিম বাংলার কবিতা তথা বাংলা ভাষায় লিখিত কবিতা সামান্য যা পড়েছি, দুইচোখের সামনে যা পেয়েছি, তার পরিপ্রেরক্ষিতে বলতে পারি সৌমিত্র দেব কবিতা লিখছেন, কবিতা এবং সাহিত্যকর্ম ছাড়া আর কিছুই করছেন না। নিরেট সাংবাদিকতা এবং সম্পাদনা ছাড়া।

কবিতা, প্রবন্ধ, সম্পাদনা মিলিয়ে সৌমিত্রের গ্রন্থসংখ্যা ৪০–এই চল্লিশটি গ্রন্থের প্রাণবীজ-বিশ্লেষণে একথা বলা যায় যে, সৌমিত্র আপাদমস্তক একজন কবি। ব্যক্তিচরিত্র বিশ্লেষণে এবং লেখনী-প্রতিভা নিরুপনে বলতে দ্বিধা নাই যে, সৌমিত্র জন্মেছেন কবিতার রসমালায় সিক্ত হয়ে, কাব্যরসসিক্ত করার জন্য আমাদের মতো পাঠককে এবং কবিতাদেবীকে।

 

 

কবি সৌমিত্র দেব-এর বায়ান্নোতম জন্মদিন পালন করতে পেরে FIITS FOUNDATION তার সাহিত্য-সংস্কৃতিন্তার দিগন্তকে সম্প্রসারিত করেছে বলেই আমার বিশ্বাস।

ফিটস ফাউন্ডেশনের এই আয়োজনে প্রধান অতিথির আসন অলঙ্কৃত করেন বিটিআরসির চেয়ারম্যান, সিনিয়র সচিব, কবি শ্যামসুন্দর সিকদার। শ্যামসুন্দর সিকদার শুভাশিস প্রদানসহ সৌমিত্র দেবের কবিতার দেশপ্রেমের চেতনা তুলে ধরেন। ভরাটকণ্ঠে, দরাজগলায় কবি শ্যামসুন্দর সিকদার অনুষ্ঠানের আবেদন বাড়িয়ে দেন।

সভাপতিত্ব করেন বাংলা একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত শিশুসাহিত্যিক আনজীর লিটন। তিনি উপস্থিত সকল অতিথি এবং বক্তাগণের বক্তব্যকে তার সমাপনী ভাষণের তুলে নিয়ে আসেন। কবির জন্মদিন প্রতিদিন, প্রতিটি নতুন কবিতায় পালিত হয় কবির জন্মদিন। কবির কোনো দেশকাল নাই, কবি সয়ম্ভূ; কবি শান্তি ও স্বাধীনতাকামী, কবি মানবতার সেনানী, বীর্যবান মহাপুরুষকে ধারণ করেন কবি–সৌমিত্র দেবের কবিতায় প্রেম তথা দেশপ্রেম প্রধান হয়ে দেখা দেয়। তিনি সহাবস্থান ও সাম্যের যুত বাঁধেন তার কাব্যমালায়—-আনজীর লিটন তুলে ধরেন অবলীলায়। প্রধান বক্তার আসন অলঙ্কৃত করেন কবি সঞ্জীব পুরোহিত। তিনি রবীন্দ্রনাথের লেখা থেকে পাঠ করে কবির প্রতি সুবিচার করেন।

বিশেষ অতিথি হিসাবে মূল্যবান বক্তব্য প্রদান করেন লেখক-সম্পাদক-অধ্যাপক কাজী নুসরাত সুলতানা। মাতৃময়ী নুসরাত আপা সৌমিত্র’র সাহিত্যমানস সম্পর্কে বিশদ আলোচনা করেন। একই সাথে কবিতা, প্রবন্ধ, গল্প, সম্পাদনা, প্রকাশনা–এই বহুবিধ গুণের অধিকারী দেবের নিরলস লেগে থাকার ব্যাপারটি তার কাছে আকর্ষণীয় মনে হয়।

লেখক-রাজনীতিক ড. মামুন আল মাহতাব বন্ধুবর কবির প্রতি ভালোবাসা প্রদর্শন করেন। বহু স্মৃতি তুলে ধরেন। সিলেট এলাকার মানুষ হিসেবে সৌমিত্রকে নিয়ে গর্ব করলেন এই ইয়াং ডাক্তার-রাজনীতিক। একই সুরে সুর মিলিয়ে দেবের বন্ধু মূল্যবান কথা বলেন; তিনি সৌমিত্রের বই প্রকাশক মোস্তফা সেলিম।
গবেষক-সম্পাদক-প্রকাশক মোস্তফা সেলিম কবিবন্ধুর উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করেন।

 

 

 

কবিতা, প্রবন্ধ, সম্পাদনা মিলিয়ে সৌমিত্রের গ্রন্থসংখ্যা ৪০–এই চল্লিশটি গ্রন্থের প্রাণবীজ-বিশ্লেষণে একথা বলা যায় যে, সৌমিত্র আপাদমস্তক একজন কবি। ব্যক্তিচরিত্র বিশ্লেষণে এবং লেখনী-প্রতিভা নিরুপনে বলতে দ্বিধা নাই যে, সৌমিত্র জন্মেছেন কবিতার রসমালায় সিক্ত হয়ে, কাব্যরসসিক্ত করার জন্য আমাদের মতো পাঠককে এবং কবিতাদেবীকে।

 

কবি রেজাউদ্দিন স্টালিন বিশ্বমাত্রিক বক্তব্যের আধারে সৌমিত্রের প্রেম-অপ্রেম-কাম, নারীপ্রেম, প্রকৃতিপ্রেম চেতনা-সঞ্জাত কুহকী-বাস্তবতাকে রসবোধের আলোকে আলোচনায় নিয়ে আসেন।

কবি হাসিদা মুন, কবি আকমল হোসেন খোকন, কবি ড. অধ্যাপক অধীর সরকার, কবি-লেখক-সম্পাদক মুজতবা আহমেদ মুরশেদ, কবি আমিনুল ইসলাম, কথাসাহিত্যিক সাদত আল মাহমুদ, ড. আবু তাহের, কবি-লেখক-ম্পাদক নাহিদা আশরাফীসহ কবি-লেখক-সম্পাদকগণ দেবের কাব্যপ্রতিভা নিয়ে মূল্যবান বক্তব্য প্রদস্ন করেন।

 

 

 

 

কবি নাহিদা আশরাফী এবং কবি শাহনাজ পারভীনের সুললিত আবৃত্তি অনুষ্ঠানকে সুখকর করে তোলে। কবি শামীমা সুমি, কবি রিমি কবিতা, চিত্র-পরিচালক ইরানী, কবি তাবিয়াসহ সৌমিত্র দেবের স্ত্রীলক্ষ্মী পলা দেব বক্তব্য, আপ্যায়নে মাতিয়ে রেখেছিলো সারাক্ষণ।

 

আলোক-প্রজ্জ্বলন, কেক-কাটন, চা-কফি-গল্প-আড্ডায় কেটেছে বেলা, আমি একেলা, নই আমরা কেউ–ভালোবাসা আর কবিতার এমনি ঢেউ।

 

সার্বিক ব্যবস্থাপনা ও সঞ্চালনা ফিটস ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. গোলাম মোস্তফা নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন। সঞ্চালনায় সহযোগী ছিলেন সাদিয়া শারমিন।

 

Calendar

August 2022
S M T W T F S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031