ফণীর কারণে বাংলাদেশ ও লাওসকে যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা

প্রকাশিত: ১১:০৭ পূর্বাহ্ণ, মে ৪, ২০১৯

ফণীর কারণে বাংলাদেশ ও লাওসকে যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা

ঘূর্ণিঝড় ফণীর কারণে বাংলাদেশ ও লাওসকে যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হয়েছে।
বঙ্গমাতা অনূর্ধ্ব-১৯ ইন্টারন্যাশনাল গোল্ড কাপের ফাইনাল ম্যাচ মাঠে গড়াতে পারেনি। শেষ পর্যন্ত আয়োজকরা ফাইনালে ওঠা দুই দলকেই চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করেছে ।
বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শুক্রবার সন্ধ্যা ছয়টায় ম্যাচটি শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ফণীর জন্য কোনো ঝুঁকি নিতে চায়নি বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন।

সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় প্রেসবক্সে এসে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী বলেন, ফাইনাল আয়োজনের জন্য সব রকম প্রস্তুতি ছিল কিন্তু ঘূর্ণিঝড় ফণীর কারণে সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় আয়োজক কমিটি ও সবাই মিলে ফাইনালটি বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে এবং ফাইনালের দুই দলকে যৌথচ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হচ্ছে।

যেহেতু ফাইনাল হয়নি, চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপের জন্য যে প্রাইজমানি ছিল, তা দুই দলের মধ্যে সমানভাবে ভাগ করে দেওয়া হবে।

চ্যাম্পিয়ন দলের জন্য ২৫ হাজার ডলার ও রানার্সআপের জন্য ১৫ হাজার ডলার প্রাইজমানি ছিল।”

সংবাদ সম্মেলনে লাওসের টিম ম্যানেজার গালদানসুখ তুভশিনবায়ার আয়োজক কমিটির সিদ্ধান্ত মেনে নেওয়ার কথা জানান।

এ মুহূর্তের আবহাওয়া বেশ ভালো এবং খেলার উপযোগী। একটা দল হিসেবে ফাইনাল খেলতে না পারাটা দুঃখের, কিন্তু সার্বিক পরিস্থিতির বিবেচনায় আয়োজকদের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাতে হবে।

গ্রুপ পর্বে মঙ্গোলিয়াকে ৫-০ গোলে হারানোর পর তাজিকিস্তানকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল লাওস। সেমি-ফাইনালে দলটি কিরগিজস্তানকে গুঁড়িয়ে দিয়েছিল ৭-১ গোলে। গ্রুপে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে ২-০ গোলে হারানো বাংলাদেশ পরের ম্যাচে কিরগিজস্তানকে ২-১ গোলে হারিয়েছিল। সেমি-ফাইনালে মঙ্গোলিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়েছিল স্বাগতিকরা।