ফেজবুক নামের পরকীয়া ভাইরাস

প্রকাশিত: ১:১৩ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৯, ২০১৮

ফেজবুক নামের পরকীয়া ভাইরাস

নারগিস সোমা

ম্যাসেঞ্জারে টুক শব্দটার অপেক্ষা করেন না এমন মানুষের সংখ্যা বর্তমান সমাজে খুব কম। আমরা যেন দিন দিন ফেজবুককে জীবন সঙ্গী করে নিচ্ছি, তার কারন কি? সবার ব্যাস্ততা? নাকি নিজের মনের চাহিদা পূরন?
একজন বিবাহিত মানুষ আর আরেকজন অবিবাহিত মানুষ কারো চাহিদা কারো চেয়ে কম নয়। অবিবাহিত মানুষ হয়ত কাজের ব্যস্ততার কারণে জীবন সঙ্গী কিন্বা পছন্দের মানুষকে খুজে পাবার জন্য
ম্যাসেঞ্জারের টিক শব্দের অপেক্ষা করে কিন্তু বিপরীত মানুষটার অপেক্ষা কিসের?
তাহলে কি মানুষ তার গতানুগতিক জীবনসঙ্গীর সাথে জীবন বিনিময়ে হাঁপিয়ে উঠেছে নাকি ঋতুর পরিবর্তনের সাথে, সময়ের পরিবর্তনের সাথে তার সব কিছুর পরিবর্তন? এ চাওয়ার কারন কি তা তো আমরা কখনো ভাবছিনা। একজন বিবাহীত মানুষের একই রুটিন যেমন সকালে ঘুম থেকে উঠা,নাস্তা করা, অফিস যাওয়া আবার বাড়ীতে ফিরে এসে ঘুমিয়ে পরা, আরেক জন নাস্তা তৈরী,রান্না করা, কারো অপেক্ষা করা তারপর ঘুম। একটা রুটিন বাধা জীবন, আমরা সব কিছুতে নতুনত্ব খুজি এটা সব কিছুতেই, একঘেয়েমি জীবনে যখন কোন নতুন অপরিচিত মানুষের ছবি সামনে আসে মাোবাইলের ফেজবুকের পেজে তখন অবচেতন মন থেকেই তৈরী হয় তাকে জানার ইচ্ছা, জানার ইচ্ছাটা কারো প্রকট হয় কারো স্বল্প।
স্বল্পতা কিছুূদিনে হারিয়ে যায় কিন্তু প্রকট ইচ্ছা গুলো দিন দিন ভয়ঙ্কর রুপ ধারন করে, বিবাহিত মানুষটি জরিয়ে যায় নতুন কোন সম্পকে আর অবিবাহীত জরিয়ে যায় নতুন কোন জীবনে তা তার জন্য কখনও হতে পারে কল্যান কর কখনো বা অকল্যানকর।
আমরা কেন নতুন জীবনে জড়াই এটা কি আমরা ভেবে দেখেছি? না দেখি নি জীবনে যখন কোন ঘাটতি থাকে সেই ঘাটতি থেকে জন্ম দেয় ঘাটতি পূরনের উৎস খুজে বেরানো তা শারীরিক ও হতে পারে অথবা মানসিক।
একজন বিবাহিত মানুষ তার শারীরিক ঘাটতি কেন থাকবে এটা প্রশ্ন আসতে পারে মনে।
প্রতিটা মানুষের মনের আর শারীরিক একটা চাহিদা থাকে সে যেমনটি ভাবে চায় তার সঙ্গিনী সেভাবে তার চাহিদা পূর্ণ করতে পারছেনা ফলে তৈরী হচ্ছে ঘটতি পূরনের আকাংখা। শূন্য স্হান কখনো ফাকা থাকেনা তা মন হোক কিন্বা জমিন, কিছু পূনর্তা দৃশ্যমান কিছু  অদৃশ্য ।
ফেজবুক অনেক সহজ একটা মাধ্যম এবং নিরাপদ এর মাধ্যমে খুব সহজেই সমাজের চোখকে ফাকি দেওয়া যায় আর এজন্য বেশীভাগ মানুষ তার ঘাটতি পুরনের মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে ফেজবুক।
আমাদের এই সমস্যা গুলো আমাদের নিজেদেরকেই সমাধান করতে হবে সংসার নামের পুস্তকে শুধু নিজে নাম লিখলে হবেনা সেই পুস্তকের প্রতিটা পাতা সাজাতে হবে ভালোবাসা দিয়ে, একজন আরেক জনকে বুঝতে হবে, বুজলে জানলে সম্পর্ক গুলো সহজ হয়, আর কম হয় দুরত্ব্য,
ফেজবুক কখনো খারাপ না, খারপ আমাদের ব্যাবহারের ধরন, আমরা যেমন হারিয়ে যাওয়া বন্ধুটিকে খুজে পাই ফেজবুকের মাধ্যমে তেমনি অনেকে খুজে পায় তার পছন্দের মানুষটিকে।
আমরা ঘরে  বসে একঘেয়েমি রুটিন অনুসরন না করে রুটিনে পরিবর্তন আনতে হবে আলোচনা করে, জীবন তো আমাদের যেটা সুন্দর ভাবে সাজানোর দায়িত্বটাও আমাদের।
সব ভাইরাসের যেমন এ্যানটিবা্যোটিক আছে তেমনি ফেজবুক পরকিয়ার ভাইরাসের এ্যানটিবায়োটিক হলো পরিবার পরিজনের ভালোবাসা । ভালোবাসা ছাড়া কোন সম্পর্ক সুখের হয় না…!