বগুড়ায় অতিরিক্ত মাদক সেবনে মৃত্যু, দায় এড়াতে মরদেহ গুম করে বন্ধু

প্রকাশিত: ৯:০৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২১

বগুড়ায় অতিরিক্ত মাদক সেবনে মৃত্যু, দায় এড়াতে মরদেহ গুম করে বন্ধু

 

বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার দুই বন্ধু একসাথে বসে মাদক সেবন করেছিলেন। মাদকের মাত্রা সহ্য করতে না পেরে মারা যান একজন। এই মৃত্যুর দায়ভার এড়াতে লাশ গুম করে অপহরণের নাটক সাজান অপর বন্ধু। কিন্তু রক্ষা হয়নি। পুলিশের হাতে ধরার পরার পর বেড়িয়ে আসে আসল ঘটনা।

 

আজ বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এক পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বগুড়া জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) সুদীপ কুমার চক্রবর্তী এসব বিষয়ে বিস্তারিত জানান।

 

গ্রেফতার সেই বন্ধুর নাম হারুন অর রশিদ (৩৪)। তিনি উপজেলার ইসলামপুর খাঁ পাড়ার বাসিন্দা এবং পেশায় অটোরিকশা চালক। মাদক সেবনে মারা যাওয়া তার বন্ধু একই এলাকার কৃষক হুমায়ন কবির (৩৫)।

 

২১ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সকালে দুপচাঁচিয়া থানাধীন ইসলামপুর খাঁপাড়া গ্রামের অধিবাসী আবু হুমায়ুন-এর মৃতদেহ তার বাড়ির পাশের ছোট পুকুর হতে একটি প্লাস্টিকের বস্তাবন্দি অবস্থায় উদ্ধার করে। পরে তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে হারুনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। অভিযুক্ত হারুন বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে।

 

পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বলেন, গ্রেপ্তার হারুনকে আদালত পাঠিয়ে বিষয়গুলো আরও নিশ্চিত হতে রিমান্ড আবেদন করবো। পাশাপাশি দুপচাঁচিয়াতে মাদকদ্রব্য ব্যবসায়ীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে।

 

সংবাদ সম্মেলনে অন্যানদের মধ্যে ছিলেন জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আলী হায়দার চৌধুরী, (অপরাধ) আব্দুর রশিদ, (সদর সার্কেল ও মিডিয়া মুখপাত্র) ফয়সাল মাহমুদ, (সদর হেডকোয়ার্টার) হেলেনা আক্তার, সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার আদমদীঘি সার্কেল নাজরান রউফ ও দুপচাঁচিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হাসান আলী।

ছড়িয়ে দিন