বায়োমেট্রিক নিবন্ধনে বাংলালিংকের সহায়তা নেবে টেলিটক

প্রকাশিত: ১:২৮ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৬, ২০১৬

বায়োমেট্রিক নিবন্ধনে বাংলালিংকের সহায়তা নেবে টেলিটক

এসবিএন টেলিকম ডেস্কঃ বাংলালিংক গ্রাহকদের সিম পুনঃনিবন্ধনে নিয়োজিত কাস্টমার কেয়ার ও এজেন্টদের কাছেই বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম পুনঃনিবন্ধন করতে পারবে টেলিটক ব্যবহারকারীরা।

বুধবার ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগে প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের উপস্থিতিতে টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) গিয়াস উদ্দিন আহমেদ এবং বাংলালিংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) এরিক অস এ সংক্রান্ত চুক্তিতে সই করেন।

প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, টেলিটকের ‘বায়োমেট্রিক ডিভাইস’ স্বল্পতার কারণে গ্রাহকরা কিছুটা ভোগান্তিতে ছিলেন। এখন থেকে টেলিটকের গ্রাহকরা বাংলালিংকের ডিভাইস ব্যবহার করে সিম নিবন্ধন ও তথ্য যাচাই করতে পারবেন।

মোবাইল সিমের তথ্য যাচাইয়ে গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর থেকে আঙ্গুলের ছাপ বা বায়োমেট্রিক পদ্ধতি শুরু করা হয়। এর মাধ্যমে গ্রাহকদের পরিচিতি নিশ্চিত হবে এবং অপরাধ প্রবণতা কমে যাবে বলে মনে করছে সরকার।

প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম জানান, এ পর্যন্ত ৪০ শতাংশ সিম বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধন ও ভেরিফিকেশন শেষ হয়েছে। তবে এ প্রক্রিয়ায় কোনোভাবে গ্রাহকের আঙ্গুলের ছাপ সংরক্ষণ করা হচ্ছে না বলেও জানান তিনি।

টেলিটক গ্রাহকদের বাংলালিংকের ‘বায়োমেট্রিক ডিভাইস’ ব্যবহারের সুযোগ নিয়ে সিইও এরিক আস বলেন, “একই শিল্পের অংশ হিসেবে আমরা একত্রে এগিয়ে যাওয়াতে বিশ্বাস করি। এই অংশীদারিত্বের মাধ্যমে আমরা ভবিষতেও নানা ক্ষেত্রে একত্রে কাজ করতে পারব।”

টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গিয়াস উদ্দিন আহমেদ বলেন, সারা দেশে বাংলালিংকের প্রায় ৪৮ হাজার ডিভাইস ব্যবহার করে টেলিটকের গ্রাহকরা বায়োমেট্রিক নিবন্ধন ও ভেরিফিকেশন করতে পারবেন।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির হিসেবে গত ফেব্রুয়ারি শেষ নাগাদ দেশে ছয়টি অপারেটরের মোট গ্রাহক সংখ্যা ১৩ কোটি ১০ লাখ ৮৫ হাজার ছাড়িয়েছে। বাংলালিংকের গ্রাহক ৩ কোটি ১৯ লাখ ৬০ হাজার এবং টেলিটকের গ্রাহক ৪২ লাখ ৫৭ হাজার।

এ সময় গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রাজীব শেঠি, এয়ারটেলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পিডি শর্মাসহ অন্যান্য অপারেটরের শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।