বৃষ্টি এলে

প্রকাশিত: ১০:০১ অপরাহ্ণ, জুন ৩০, ২০২১

বৃষ্টি এলে

এলিজা আজাদ

টিনের চালে ঝমঝম ঝরে পড়বে বৃষ্টি
তুমি মৌনতা ভেঙে আরও অন্তরঙ্গ হবে
সম্পর্কটা পাকাপোক্ত হবে মিলনে
এমন রোমাঞ্চকর অনেককিছু আমাদের খুব কাছাকাছি আসা ঘটনার জন্ম দেবে

সেদিন মুষলধারে বৃষ্টি ঝরেছিলো
টিনের চালে ঝমঝম বৃষ্টির শব্দটা গতি বাড়িয়ে আরও স্পষ্ট
জানালার পাশে দাঁড়ানো কামরাঙাগাছের পাতা বৃষ্টি জলে ধোয়া
মাঝে মাঝে বিদ্যুতের ঝলকানিতে পাতাগুলো চকচক করছে
তোমার অপেক্ষায় আমার সারাদিনের ক্লান্তি বৃষ্টির জলের সাথে মিলিয়ে যাচ্ছে
মনটা বকুল ফুলের মতোই প্রফুল্ল
কথা দিয়েছো তুমি আসবে

এযাবৎ কথাগুলোকে বাসি হতে দেখেছি
নিজস্ব স্বকীয়তা হারিয়ে ওরা মন খারাপ করে ফিরে যায় সবসময়

আজ এমনটা হবার আদৌও কোনো সম্ভাবনা নেই
তোমার উপস্থিতি রক্ত মাংস গড়া শরীরের উষ্ণতা বাড়িয়ে দিয়ে,
এতোদিনের অভিমানী দেয়ালটা কাদামাটির মতো নরম করে দেবে
বিগত দিনের না-পাওয়া দীর্ঘশ্বাসে ইতি টেনে
আমাকে কাছে টানতে টানতে বলবে,
এই মুহূর্তের আমি তোমার
এই মুহূর্তের তুমি আমার
আমরা সাপলুডু খেলার মতো একে অপরকে জড়িয়ে ওঠানামা করবো
এটাই এই মুহূর্তের স্বাভাবিকতা
আমরা এখন যে জীবন যাপন করছি
একে অহেতুক কথার মারপ্যাঁচে না ফেলে শুধু উপভোগ করো

জীবনের কিছু উপভোগ থাকে সারাজীবনের সঞ্চয়
প্রাপ্তি থাকে সীমাহীন
ভালোবাসা সেখানে বেনোজলে ভাসা পদ্মফুল
দেহ-সরোবরে উজ্জ্বলতা বাড়িয়ে ফুটবেই-
মুক্ত বিহঙ্গের মতো পাখা মেলে-
ঠুকরে ঠুকরে ছাপ রেখে দেহের রন্ধ্রে রন্ধ্রে-
এটাই একমাত্র অর্জন অতীত-বর্তমান এবং ভবিষ্যৎ জীবনের–

বাকি সবকিছু স্মৃতির নিটোল শরীর-
কখনো ধোঁয়াসা
কখনো ঝাপসা
ছুঁতে গেলে হাতের মুঠোয় যায়না ভরা
স্মৃতি যেনো মৌন মিনার
হৃৎপিণ্ড চিরে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে থাকে সদম্ভে-

বৃষ্টি এলে আজও আমি প্রেমিকা, তুমি নয়তো অন্য কারো…!

ছড়িয়ে দিন