ব্যাংকার মহবুবুল কাদির চৌধুরী আর নেই

প্রকাশিত: ১:৩২ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৪, ২০২১

ব্যাংকার মহবুবুল কাদির চৌধুরী আর নেই

সিলেট প্রতিনিধি 
ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড সিলেট গোটাটিকর শাখার ইনচার্জ মহবুবুল কাদির চৌধুরী দীর্ঘ ১০/১২ দিন করোনার সাথে যুদ্ধ করে আজ সকাল সাড়ে ১০- ঘটিকার দিকে সিলেট উইমেন্স মেডিকেল হাসপাতালের আইসিইউ ইউনিটে মৃত্যু বরণ করেছেন। তিনি সদাহাস্যজ্বল, বিনয়ী, নম্র, ভদ্র,সত ও সদালাপী একজন কর্মকর্তা হিসাবে সিলেটের ব্যাংকিং এরিনায় পরিচিত ছিলেন। তিনি ব্যাংক অফিসার্স ক্লাব সিলেটের নির্বাহী কমিটির কয়েক বার ধর্মবিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। তাই অত্যন্ত সৎ  ও নিবেদিত এ কর্মকর্তার মৃত্যুতে সিলেটে শোকের ছায়া নেমে আসে।
তিনি সাধারণ বীমা কর্পোরেশনের সিলেটের সাবেক রিজিওনাল ম্যানেজার মোঃ নজমুল হোসেন চৌধুরীর পুত্র। তাঁহার গ্রামের বাড়ি দক্ষিণ সুরমার বরইকান্দি গ্রামের সুলতানিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে বাদ আসর নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়, এরপর পারিবারিক গোরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়ে সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান।
১৯৬৪ সালে বরইকান্দি গ্রামের এক মুসলিম সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করা মহবুবুল কাদির ১৯৯৪ সালে ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড এর লালদিঘিরপার শাখায় যোগদানের মধ্যে দিয়ে তাঁহার ব্যাংকিং ক্যারিয়ার শুরু করেন। ২০০২- সালে ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড এর সিলেট শাখায় যোগদান করেন এবং পরবর্তীতে তাঁহার মেধা, সততা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে ব্যাংক তাঁকে গোটাটিকর শাখার ইনচার্জ করে।
তাঁহার মৃত্যুতে এক যৌথবিবৃতিতে গভীর শোক ও শোকসন্তপ্ত পরিবারকে সমবেদনা জানিয়েছেন ব্যাংক অফিসার ক্লাব সিলেটের সভাপতি সৈয়দ নকিব হোসাইন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল হাদি ও সাহিত্য সম্পাদক আর কে এম মোশতাক চৌধুরী। নেতৃবৃন্দ বলেন মহবুবুল কাদির চৌধুরীর এ শুন্যতা পূরণ হবার নয়। জনগণকে সেবাপ্রদানকারি এ কর্মকর্তার মৃত্যুর প্রতি সরকারের সুদৃষ্টি কামনা করেন।
অপর এক যৌথ বার্তায় শোক প্রকাশ করেন ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড এর লালদিঘির পার শাখার ম্যানেজার আবু মোহাম্মদ সাইফুজ্জামান, ইসলামপুর শাখার ম্যানেজার রাফি শাফক্বাত আদিল, সিলেট শাখার ম্যানেজার মোহাম্মদ ফুয়াদ চৌধুরী ও শেরপুর শাখার ম্যানেজার মাসুম আলম খান রাজন।