বয়ানে রামাদান ০৯

প্রকাশিত: ১০:১২ অপরাহ্ণ, মে ২, ২০২০

বয়ানে রামাদান ০৯


চৌধুরী হাফিজ আহমদ

ধর্মের নামে বা কোরআনকে নিয়ে ব্যবসা করা অন্যায় ও অবৈধ । আজকাল তাকেই বৈধ বলে অধিক মুনাফা কামানো হচ্ছে । মুসলিম সমাজ এই সব ডাকাত দের কারণে নিঃস্ব হতে চলেছে । কেউ মাজার কে বাজার বানিয়েছে আবার কেউ খানকা কে খাজানা আবার কেউ কেউ মাসজিদ মাদ্রাসার নামে চাঁদা তুলতে গিয়ে মাস্তানী করছে আর অসাধুরা তাবিজ মন্ত্র জাদু উপরি আসর এর নামে লুঠ করেই চলেছে সমানে ।

আলেম নামধারীরা এমন করে ধর্মকে ব্যবহার করছে যা দেখলে মনেই হবে ওরাই যেন ধর্মের ঠিকাদার । ওরা এতই ভয়ংকর তাহাদের কেউ কিছু বললেই হুংকার দেয় রাজনীতির মাঠে নেমে জনগণকে জিম্মি করে ভিন্ন কায়দায় , কাউমী সুন্নী দেওবন্দি বেরলভী এই সব নাম দিয়ে ইসলামের পতাকে টুকরা টুকরা করছে । খতমের নামে হাদিয়া খতম তারাবীহ এর নামে হাদিয়া জানাজা দাফন কাফনের শিরনী ইত্যাদির নামে চলে রীতিমত চুক্তি , আরেক ধান্দা এরা করে ইয়াতিম খানার নামে । যেখানে সেখানে খুলে বসে ইয়াতিম খানা ।

এই রকম অবস্তায় আজকে চারিোদিকে মুসলিম সমাজ হিমশিম খাচ্ছে , এই সব দালালরা কারো কষ্টে আসেনা, কোন বিষয় সমাধানে রাজনীতির ময়দানে নাই ,এদের কারণেই মুসলমানেরা আজকে মার খাচ্ছে কাশ্মীরে , চেচনিয়াতে ,ফিলিস্তিনে , সিরিয়া , ইরাক, ইয়েমেন ,বার্মা , আফ্রিকায় । উল্লেখিত দালাল রা এই সব বিষয়ে নীরব । অনেকেই গলাবাজী করে বলে বা বলবে অনেক কিছুই কিন্তু বাস্তবে এরা টাকা কামায় এবং লোকেদের বলে , চাইতে মৃতদের কাছে । পীর ওলীদের নামে বাটপারি করে নিজে আরামে থাকছে । এই রকম ব্যবসা কোরআনের ভাষ্য অনুযায়ী একদম হারাম । এই সব ফিতনা থেকে যত সম্ভব বেঁচে থাকাই উত্তচ। আল- কোরআনে সকল ব্যাপারে সুস্পষ্ট বক্তব্য রয়েছে । এখানের কিংবা সেখানের , কারণ কোরআন এসেছেই বলতে মানুষদেরকে , হিদায়াতের বার্তা নিয়েই । এই রামাদান মাসে তার আগমন ।

কোরআন এসেছে বার্তা বাহকের মাধ্যমে, তিনি কোন মানুষ নন । তিনি হচ্ছেন মালাইকা জিবরীল ।যাকে আল্লাহ ডেকেছেন রুহুল আমিন নামে । তিনি একসাথে বার্তা নিয়ে আসেন নাই । এসেছেন ধাপে ধাপে রাসুলুল্লাহ সঃ এর কাছে । সুতরাং আল- কোরআন নিয়ে ছিনিমিনি খেলবার অবকাশ নেই ।

চলবে এবং চলছে ও তার আপন গতিতে , কোরআনের হিফাজত করছেন আল্লাহ স্বয়ং । এবং তিনি ই এর একমাত্র লেখক সংরক্ষক ও প্রচারক ।

আমাদের কাজ হচ্ছে তাহার ইবাদত করা । কোরআনের বর্ণনা অনুযায়ী , যদি ণা বুঝি এর জন্য রয়েছে হাদিসের বানী লক্ষ লক্ষ্য হাদিস আছে কোরআন বুঝার ও মানার জন্য তাই কোরআন হাদিস পড়তে বা বুঝতে টা পাঠ করা ছারা বিকল্প কোন পথ নাই , যদি কেউ শিখতে চায় তা হলে এখনো আছেন অনেক উস্তাদ তাহারা খুশী মনেই সেই খিদমাত আঞ্জাম দিয়ে চলছেন , এরা ব্যবসায়ী নয় , এরা দুনিয়ার ব্যবসা বুঝেনা , তাহারা আল্লাহর সাথে সরাসরি ব্যবসা করে কেউ তাহাদের মুনাফা দেখেনা তাহাদের আসল মুনাফাই হচ্ছে তাকওয়া তাহারাই হচ্ছেন মুমিন আল্লাহর প্রতি অবিচল আস্তাই সম্বল কাউকে পরওয়া করিনা আল্লাহ ছারা , বাদশাহ থেকে ফকির যার যার সম্মান আলাদা এবং একমাত্র একক স্তান অবস্তান মর্যাদা প্রশংসা ইবাদত বন্দেগী যা আছে সব কিছু আল্লাহর প্রাপ্য - তিনি বলেছেন তাই ** ক্কুল ইন্না সালাতি ওয়া নুসুক্কি ওয়া মাহইয়া ইয়া ওয়া মামাতি লিল্লাহি রাব্বিল আলআমিন (৬,১৬২ সুরা আল – আনআম) যত ত্যাগ যত ইবাদত যত সালাত সিয়াম সব কিছু একমাত্র আমার ই জন্য । এখানে অন্য কিছু দেবতা কবর মাজার মানত বলি বা কাউকে শরিক করার নাম ই হচ্ছে শিরক , এবং শিরক এমন এক ধৃষ্টতা যার কোন ক্ষমা নাই আল্লাহ কোন ভাবেই শিরক করাকে মেনে নেন না , ইবলিস এই শিরকের কারনেই আল্লাহর রহমত ও করুনা জান্নাত থেকে বঞ্চিত হয়েছে বিতারিত হয়ে অশান্তিতে মানুষের ঈমান ধ্বংসের পিছনে লেগে আছে সন্দেহ বিপদে ফেলা অতর্কিত হামলা করা মামলা জিদ হিংসা অমানবিকতা হত্যা রাহাজানি অত্যাচার জুলুম নারী নির্যাতন অশ্লীলতা ধর্ষণ লোভ প্রতারনা ধোঁকা ঘুষ অন্যায় আচরন সুদ মদ জুয়া জিনা ইত্যাদি ই হল ইবলিসের আমল । তাহার থেকে নিজেকে বেচে থাকতেই হচ্ছে ভাল আমল এই কারনেই অনুশীলনের প্রয়োজন এক দিনে তা সম্ভব নয় তাই পুরা মাস ব্যাপী আয়োজন সেই মাসের ই নাম হচ্ছে পবিত্র রামাদান , আজকে আমরা নবম দিন আতিবাহিত করছি রহমতের জন্য বরাদ্দ কৃত ১০ দিনের মধ্যে চলে গেল ৯ দিন , কামনা আল্লাহ যেন আমাদের কে তাহার রহমতের খাজানা থেকে বঞ্চিত না করেন , আমাদের সকল ইবাদত ই যেন হয় তাহার সন্তুষ্টির জন্য আমরা চাইব পুন্যতার মাধ্যমেই এই মাসকে কাঠাই , এই মাসের প্রত্যেক সেকেন্ড যেন পুন্য থেকে খালি না জায় , মুহূর্ত কে যেন মিস না করি এই মাস এমন এক মাস যা আমাদের তাক্কদির কে সমৃদ্ধ করে , যাহারা কষ্ট করছি রোগে অভাবে অপূর্ণতায় আমরা এই মাসেই আমাদের তাক্কদির বদলাতে পারি কল্যানের মাধ্যমে সিয়াম সালাত দান উপকারের মাধ্যমে সামনে আসছে কদরের প্রহর এই রাত্রেই ফায়সালা করেন আল্লাহ তায়ালা, যত গোনাহগার আছি আমাদের তাওবা করা উচিত যত বেশী তাওবা করব তত বেশী প্রাপ্তি মিলবে রামাদানের আমল্গুলার মধ্য অন্যতম আমল ই হল অনুশোচনা করে নিজে নিজে ভুল্গুলা হিসেব করে তার জন্য ক্ষমা চাওয়া অন্য সব মাসের মত এই মাস নয় এই মাসে দিনে থাকি সিয়ামে রাত্রে থাকি কিয়ামে তখন অন্যায় আচরন ও ভুল্গুলার জন্য ক্ষমা চাওয়া সহজ , আল্লাহ গাফুরুর রাহীম তিনি ক্ষমা করতে পছন্দ করেন এবং করছেন ও প্রতিনিয়ত – যদি তাহার অনুগ্রহে না থাকতাম তা হলে বয়ানে রামাদান লিখতে পারতাম না বয়ান দিতে ও পারতাম না যদি তিনি সদয় না হতেন তা হলে খাবার আরাম তো দূরে থাক শ্বাস ফেলাই দায় হত , নবম দিনে ক্ষমা চেয়ে দশম দিনের জন্য প্রস্তুতি নেই রহমতের দশকে কোন ভাবেই খালি হাতে না ফিরি । সিয়াম কিয়াম আমাদের কবুল হউক সেই দু`আ করি আসুন আমরা সবাই একে অপরের কল্যাণকামি হয়ে সমাজ থেকে দূর করে দেই অন্ধকার ।

ছড়িয়ে দিন

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Calendar

December 2021
S M T W T F S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031