বয়ানে রামাদান ১৮

প্রকাশিত: ৭:৫০ অপরাহ্ণ, মে ১১, ২০২০

বয়ানে রামাদান ১৮


চৌধুরী হাফিজ আহমদ
ইসলামের বাগানে যে ফুল্গুলা রয়েছে এর মধ্যে সবচেয়ে বেশী ও আকর্ষণীয় গন্ধ যে ফূলে তার নাম হচ্ছে রামাদান , একমাস মাত্র অবস্তান করে আমাদের মাতিয়ে রাখে তার সুবাস দিয়ে এই এক মাসে আমাদের উপহার দেয় অগুনিত , তাহার জন্য মন ব্যাকুল হয়ে উঠে যখন তখনি আনন্দের মধ্যেই চলে যায় ,সিয়ামের আলচনায় আমি প্রায় ই বলি সালত সিয়াম হচ্ছে একান্তই আল্লাহর জন্য মাসের সিয়ামের প্রতিদান দেন আল্লাহ সয়ং নিজে তাই এর ফজিলত বর্ণনা বা হিসাব রাখা কারো পক্ষেই সম্ভব নয় , ধরে নিতেই হবে সিয়ামের মাসে আমি আপনি সবাই আল্লাহর রহমতের মাগফিরাতের নাজাতের খাতায় আছি যদি মনে করি নাই তা হলে নাম লেখাবার জন্য কাকুতি মিনতি করা উচিত , এমন করে আবেদন করব তা দেখে আল্লাহ রাজী ও খুশী হয়ে লিস্টে নাম তুলে নেবেন , ইবাদতের সৌন্দর্য হচ্ছে একাগ্রতা , সিজদায় কান্না করে জমিন ভিজিয়ে দেয়া , হৃদয় উজার করে আল্লাহর কাছে শর্ত হীন ভাবে আত্মসমর্পণ করে দেয়া , এমনিতেই আল্লাহ তায়ালা সুন্দর তাহার সকল সৃষ্টি একদম নিখুঁত এমন এমন সুন্দর সৃষ্টি আছে যা দেখলে মনপ্রান আনন্দে নেচে উঠে , তিনি পবিত্র ও পবিত্রতা তাহার পছন্দ তাই তিনি সবকিছুতেই পবিত্রতার আশা করেন , পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে আমাদের হুকুম দিয়েছেন , ইসলামের ৌন্দর্য প্রীতি ইতিহাস খ্যাতি পায়েছে ,ইসলাম চায় মানুষের ঘর বাড়ি কাপর চোপড় পোশাক আসবাব পত্র সব কিছুই সুন্দর ও নান্দনিক হোক , যাহাদের মন মানসিকতা নষ্ট হয়নি সে সুন্দরয্য উপভোগ করবে সুন্দরয্য কে না করবে এমন মানুষ পাওয়া কঠিন ,তিনি গবাদী পশু থেকে নিয়ে জমিনের ঘাস পর্যন্ত সৃষ্টি করেছেন যা দেখতে সুন্দর গুনে ভর্তি অপরদিকে আকাশ মণ্ডলী গ্রহ নক্ষত্র ‍তাও দেখতে নয়ন জুরায় – আমাদের আলো ও তাপ দেয় দিনে রাত্রে ঘুমের জন্য প্রয়োজনীয় অন্ধকার দিয়ে সেবা করেই যাচ্ছে ,মনোরম উদ্যান সৃষ্টি করেছেন যার বৃক্ষাদি উদ্গত করার ক্ষমতা কারোর ই নেই ,সালাত আদায়ের ক্ষেত্রে পরিস্কার থাকার জন্য বলেছেন ,তিনি বলেন ** হে বনি আদম প্রত্যেক সালাতের সময় সুন্দর পরিচ্ছদ পরিধান করবে । এবং আহার কর পান কর কিন্তু অপব্যায় করবেনা তিনি (আল্লাহ ) অপব্যায় কারী কে পছন্দ করেন না। বল আল্লাহ স্বীয় বান্দাহদের জন্য যে সব শোভার বস্তু ও বিশুদ্ধ জীবিকা সৃষ্টি করেছেন তা কে নিষেধ করেছে? বল তা ঈমানদারদের জন্য পার্থিব জিবনে,বিশেসত কেয়ামত দিবসে ।এরূপে আমরা জ্ঞানীদের জন্য নিদর্শন সমুহ বিশদ ভাবে বিবৃত করি **( সুরা আরাফ; ৩১-৩২), সুন্দরয্য কামনা এবং শোভা বর্ধন আকাঙ্ক্ষা ইসলামের কাম্য যাতে মানুষ মানসিক প্রাশান্তি পেয়ে তার মর্যাদা লাভ করতে পারে । ফলে তার প্রতি কেউ অবজ্ঞা প্রকাশ না করে এবং তার প্রাপ্য অধিকার থেকে তাকে বঞ্চিত না করে , আল্লাহ এমন করে উপমা উপস্তাপনা উপদেশ লিখনি বক্তব্যের সুন্দরযতা শালিনতা ও ভাষা ব্যবহার এর ক্ষেত্রে আমাদের অনেক শিক্ষণীয় কথা বলেছেন যাহার মাধ্যমে আমরা নিজেকে সমৃদ্ধ করতে পারি ,চাল চলনে কথা বলায় লেনদেনে পারস্পরিক সম্পর্কে সর্বত্রই সুন্দরয্য নান্দনিকতা আদব ইত্যাদি প্রকাশ ঈমানদারদের অভ্যাস ।,এমন কিছু যার গন্ধে অন্যের কষ্ট হয় তা পরিহারে নির্দেশ রয়েছে যেমন কাঁচা রসুন পেয়াজ শুঁটকি ইত্যাদি খেয়ে সালাতে না যেতে। রামাদানের মধ্যেই আমরা সবাই চাইব আল্লাহর কাছে পবিত্র এক জীবন যে জীবনে অপবিত্রতা বা অন্যায় ও অন্ধকার আর প্রবেশ করবেনা বা করতে দেবনা ,খাবারের মধ্যে ও আল্লাহ আমাদের পবিত্রতা সুন্দরয্যতার প্রকাশ ঘটাতে বলেছেন , কিন্তু কোরআন না বুঝার কারনে আমরা প্রতিনিয়ত ঠকছি , ভেজাল বাজে খাবারে অভ্যস্ত হয়ে পরছি, তৈলাক্ত বাসী অসম খাবার ভক্ষনে রোগ জীবাণুর প্রসার বেড়েই চলেছে , বলতে গেলে রুচীর পরিচয় দিচ্চিনা রুচিহীন খাবার আমাদের সমাজের পরিবেশ নষ্ট করছে , আর যুবক যুবতি এই ফাঁকে নেশার জালে বন্ধি হয়ে জীবনটাকেই পচিয়ে ফেলতেছে এদের বুঝাতে হবে হারামেই আরাম নয় আরাম ই হারাম হয় , আজকে ১৮তম দিবস চলছে রামাদানের আমরা যাহারা সতর্ক হইনি এখনো আসুন ইসলামকে জানি বুঝি , ইসলামের সুন্দরয্য রুচী অভ্যাস গুলা রপ্ত করে বাস্তব জিবনে সুন্দর করি , রামাদান গেলে আবার আসতে বাকী এক বছর , আজকের মত অবস্তায় আগামি বছর থাকব কি না জানিনা , সুস্ত থাকতে ইবাদতের মর্যাদা বা মুল্য আলাদা – রামাদান মাস আলাদা করে দেওয়ার মানেই হচ্ছে ইবাদত করে নিজের পুন্যের একাউন্ট কে রিচারজ করে নেয়া , একেকটি রাত ও দিন রামাদানের অপূর্ব সব নিয়ামতে ভর্তি , এই গুলা আমাদের জন্য আমরাই এই সবের প্রাপক , আল্লাহর কাছ থেকে চেয়ে নেবার এইটাই মোক্ষম সময় ,আজকের এই দিনে আমরা সেই সব কল্যান ই চাইব একে অপরে আল্লাহর কছে যাহাতে আগামী রামাদান পর্যন্ত শুকরিয়া আদায় করি । শেষ হতে বাকী মাত্র ১০ দিন – আসুন এখনো সময় আছে মাফ চেয়ে আল্লাহর থেকে দুনিয়াতে শান্তি আখিরাতে মুক্তি নিশ্চিত করি । আল্লাহ যেন আমাদের সবাইকে তাওফিক দেন কোরআন সুন্নাহ অনুযায়ী আমল করার – একে অপরে কল্যান চাইলে ক্ষতি নাই , সমাজের ও দেশের কল্যাণ চাওয়াই উত্তম হবে -কারণ এবারে আমরা অতিক্রম করছি এক মহা মহামারীর যার ছোবলে বনি আদমেরা দিশেহারা , বন্দী জীবন যাপন করছে এমন অনিশ্চিত অবস্তা থেকে রাব্বুল আল আমিন যেন আমাদের পথ দেখিয়ে রক্ষা করেন আপদ বিপদ থেকে – তাওবা ইসতেগফার সহ দুরুদ শরিফ পাঠের অনুরোধ রাখছি – আসতাগফিরুল্লাহ ওয়া আতুবু ইলাইহি — আস সালাতু আস সালামু আলান নবী আল্লাহূম্মা সাল্লি আলা মুহাম্মাদ -ওয়ামা আলাইনা ইল্লাল বালাগ ।

ছড়িয়ে দিন

Calendar

November 2021
S M T W T F S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930