ভিয়েতনামে  হেরে গিয়েছিল আমেরিকা,   সমাজতন্ত্রের সাথে যুদ্ধে

প্রকাশিত: ২:৫০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৭, ২০২১

ভিয়েতনামে  হেরে গিয়েছিল আমেরিকা,   সমাজতন্ত্রের সাথে যুদ্ধে
ভিয়েতনামে  হেরে গিয়েছিল আমেরিকা,   সমাজতন্ত্রের সাথে যুদ্ধে।
আফগানিস্তানে আমেরিকা জিতেছিল এক মাসের যুদ্ধে কেবল আকাশ থেকে বোমা ফেলে। টুইন টাওয়ার, পাবলিক ভবনের ধ্বংস করার জবাবটা যথাযথ ছিল। হার যদি হতো তবে এখন হাজার কয়েক মার্কিন সৈন্য, তাদের দিকে গুলি চালাক দেখি।
দেশটাকে পুঁজিবাদের ধাঁচে সভ্য করতে চেয়ে দশ বছর পর বুঝলো, কাজ হবে না। কারণ গহীন অরণ্যের পপি চাষের আয় বন্ধ করতে পারবে না। বছরে আয় দেড় বিলিয়ন ডলার। ছেড়ে যেতে দশ বছর লাগলো।
ছেড়ে যাওয়ার প্রক্রিয়াটা ভুল। অন্তত হাজার দশেক সৈন্য রেখে ইভাকুয়েশন শেষ করে সৈন্যরা যেত। আর নারীদের কাছে ক্ষমা চেয়ে বলতো “জন্মই তোমাদের আজন্ম পাপ। আমরা চেষ্টা করেছিলাম।”
আমেরিকা সাম্রজ্যবাদী শক্তি। তার সমাজ প্রগতিশীল। সেখানে নারীসহ সবার পুর্ণ স্বাধীনতা আছে। হিটলারকে রোধ করতে মহামতি স্টেলিনও মার্কিনের সাথে এক হয়। ফিলিস্তিনী নেতা আল হোসাইনী বরং ২২ হাজার সৈন্য নিয়ে হিটলারের বাহিনীতে ছিল। আমেরিকা বৃটেনের বিজ্ঞান পৃথিবীতে আধুনিক সমাজ গঠনের বিশাল অবদান রেখেছিল। অন্ধকার সমাজ প্রথমে সমাজতান্ত্রিক না হলে পুঁজিবাদী হওয়াও অগ্রগতি, তা কার্ল মার্ক্স এর কথা। তারা ২০ বছর কার সাথে যুদ্ধ করেছে, কেন? সেটা না জেনে এক তরফা মার্কিনের আফগান ত্যাগকে তালিবানের সমর্থক বলা বুঝায়। কতিপয় ভুয়া কমরেডও নিজের দৈন্যতা লুকাতে পারেনি। বরং মার্কিনরা চলে যাওয়ায় কারা এখন বিপদগ্রস্ত, দেখাও? নারীরা মুলত।হ্যাঁ , মার্কিনের সাম্রাজ্যবাদী রাজনীতি আছে, থাকবে, কিন্তু এখানে তারা হিংস্রদের দমনে কাজ করেছিল এবং চুক্তি করতে বাধ্য করেছে, তালিবান বিশ্বের দেশে দেশে ইসলামের নামে সন্ত্রাস রপ্তানী করবে না, আইএস’এর সাথে সম্পর্ক রাখবে না। এটা বিজয় না? কাবুলে ঢুকে হত্যাযজ্ঞ করেনি, নারীকে নিয়ন্ত্রণ আগের মত করবে না, এসব ঘোষণা দিতে বাধ্য হওয়া বিজয় বটে। এটা মার্কিন সাম্রজ্যবাদের বিজয় না, সাম্রাজ্যবাদের সিএসআর (করপোরেট সোস্যাল  রেস্পন্সেবিলিটি )।
আফগান সৈন্যরা তালেবানকে শেষে ঠেকায়নি, এটা উত্তম সিদ্ধান্ত। কেন ঠেকাবে ও ভ্রাতৃঘাতি যুদ্ধ করবে? মার্কিনরা তো তাদেরকে কম্যুনিষ্ট বানায়নি। এখন ভাল করলে ভাল, খারাপ করলে বিশ্ববাসির সন্ত্রাস দেখার একটা রঙ্গমঞ্চ হবে।
সরদার আমিনঃ লেখক , প্রকৌশলী 
ছড়িয়ে দিন