মমতার শপথ অনুষ্ঠানে এবার অনেক চমক

প্রকাশিত: ১০:৫৫ অপরাহ্ণ, মে ৪, ২০২১

মমতার শপথ অনুষ্ঠানে এবার অনেক চমক

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শপথ অনুষ্ঠানে এবার অনেক চমক । টানা তৃতীয়বারের জন্য পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামীকাল বুধবার (৫ মে) বেলা পৌনে ১১টায় রাজভবনে শপথ নেবেন তিনি। করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ছোট করে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। তবে আমন্ত্রিতদের তালিকায় রয়েছে একাধিক চমক।

মমতার শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য ও বিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলিকে।

পাশাপাশি আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে সাবেক বিরোধী দলীয়নেতা আবদুল মান্নান, কংগ্রেস নেতা প্রদীপ ভট্টাচার্য, প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরী, বিজেপি বিধায়ক মনোজ টিগ্গা, বিজেপির সাংসদ তথা রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, রাজ্য বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান বিমান বসুকেও।

এ ছাড়া শপথগ্রহণের অনুষ্ঠানে তৃণমূলের তরফে উপস্থিত থাকতে পারেন বিধায়ক পার্থ চট্টোপাধ্যায়, বিধায়ক সুব্রত মুখোপাধ্যায়, রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি, সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোর। তারকা সাংসদ দেব ও শতাব্দী রায়কেও আমন্ত্রণ জানানো হতে পারে। তবে এবার করোনা পরিস্থিতির জন্য অন্যান্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বা নেতা-নেত্রীদের আমন্ত্রণ জানানো হয়নি।

রাজ্যে বিপুল সংখ্যক ২১৩টি আসন নিয়ে ক্ষমতায় এসেছে তৃণমূল। তবে নন্দীগ্রাম আসন থেকে পরাজিত হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এখন প্রশ্ন হলো, বিধায়ক না হয়েও কি মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ায় কোনো বাধা থাকে? কিন্তু না, সংবিধান অনুযায়ী মমতার শপথগ্রহণে কোনো বাধা থাকছে না।

জানা গেছে, মুখ্যমন্ত্রীর শপথ গ্রহণের পরের দিন বৃহস্পতিবার (৬ মে) রাজ্য মন্ত্রিসভার জন্য মন্ত্রীদের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান হবে।

উল্লেখ, গতকাল সোমবার রাজভবনে গিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে রাজ্যপালের কাছে নতুন সরকার গঠনের দাবি জানিয়ে এসেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শপথ অনুষ্ঠানে রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেবকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও তিনি উপস্থিত থাকবেন কি না তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। কারণ, এবার অসুস্থতার জন্য তিনি ভোট দিতে পারেননি।

ছড়িয়ে দিন