মাদকের সঙ্গে জড়িতদের ‘প্রকাশ্যে গুলি করে মারার’ দাবি

প্রকাশিত: ১:২২ অপরাহ্ণ, মে ২৮, ২০১৮

মাদকের সঙ্গে জড়িতদের ‘প্রকাশ্যে গুলি করে মারার’ দাবি

ইসলামী ঐক্যজোটের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী মাদকের সঙ্গে জড়িতদের ‘প্রকাশ্যে গুলি করে মারার’ দাবি জানিয়েছেন।

রোববার ঢাকার হোটেল ইম্পেরিয়ালে ইসলামী ঐক্যজোটের ইফতার মাহফিলে মাদকবিরোধী অভিযান নিয়ে বলতে গিয়ে তার ওই বক্তব্য আসে।

মুফতি ফজলুল হক আমিনীর ছেলে মাওলানা আবুল হাসানাত বলেন, মাদকের সঙ্গে যারা জড়িত- তারা সমাজ ধ্বংস করে। তাদেরকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা করা উচিৎ।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী চলতি মাসে মাদকবিরোধী অভিযান শুরুর পর প্রতি রাতেই বহু মানুষ কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হচ্ছে। ১৯ মে রাত থেকে গত নয় দিনেই মৃত্যু হয়েছে অন্তত ৭৯ জনের।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যেভাবে মাদক চোরাকারবারিদের দমন করছে- তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে হতাহতের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করছেন মানবাধিকারকর্মীরা। বন্দুকযুদ্ধ বা ক্রসফায়ারের এসব ঘটনাকে ‘বিচারবহির্ভূত হত্যা’ হিসেবে বর্ণনা করে তা বন্ধের দাবি জানিয়ে আসছে তারা।

অন্যদিকে সরকারের তরফ থেকে বলা হচ্ছে, মাদকের বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি নিয়ে এগোচ্ছে সরকার। মাদকের সঙ্গে যুক্ত কেউ ছাড় পাবে না, সে যেই হোক না কেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল রোববারও এক অনুষ্ঠানে বলেছেন, “আমি মনে করি, আমরা অল আউট যুদ্ধে নেমেছি। এ যুদ্ধে আমাদের জয়ী হতেই হবে।”

ইসলামী ঐক্যজোটের ইফতার মাহফিলে এ জোটের মহাসচিব মুফতী ফয়জুল্লাহ মাদকবিরোধী অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, আইনানুগভাবে মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করে মাদকের অভিশাপ থেকে দেশ ও জাতিকে মুক্ত করতে হবে।

মরননেশা মাদক ব্যবসার সাথে যেসব রাঘব বোয়াল জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

আগামী জাতীয় নির্বাচনে ইসলামী ঐক্যজোট নিজস্ব প্রতীক ‘মিনার’ নিয়ে তিনশ আসনে প্রার্থী দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করছে বলেও জানান তিনি।

জোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামীর সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীর মাওলানা আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হুজুর, ফরায়েজী আন্দোলনের সভাপতি মাওলানা আব্দুল্লাহ মো. হাসান, ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের আমীর ড. ইসা শাহেদী, এনপিপির চেয়ারম্যান শেখ সালাউদ্দিন সালু, মুসলিম লীগের মহাসচিব কাজী আবুল খায়ের এ অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।