ঢাকা ১৮ই জুন ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১২ই জিলহজ ১৪৪৫ হিজরি

মাদারীপুরে পৌর বাস টার্মিনালের কাজ শেষ না হলেও নির্মাণ ব্যয় বেড়েছে প্রায় দেড় কোটি টাকা

abdul
প্রকাশিত জানুয়ারি ২, ২০২২, ০৮:২৯ অপরাহ্ণ
মাদারীপুরে পৌর বাস টার্মিনালের কাজ শেষ না হলেও নির্মাণ ব্যয় বেড়েছে প্রায় দেড় কোটি টাকা
মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ কাজ শেষ না করে নির্মাণ ব্যয় বাড়ানোতে ক্ষুব্ধ জেলার সচেতন নাগরিকরা। এদিকে বাস টার্মিনাল না থাকায় শহরের বাস ও মিনিবাসগুলোকে রাস্তার উপরে রাখতে হচ্ছে। এতে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। জেলাবাসীর দুর্ভোগ-দুর্ঘটনা লাঘবে দ্রুত বাস টার্মিনালটি নির্মাণ শেষ করার দাবি সচেতনদের।
পৌরসভা কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুরের গৈদি মৌজার পাকদী এলাকায় ৪ একর ৩৭ শতাংশ জমি ২ কোটি ৪৮ লাখ টাকায় অধিগ্রহণ করে পৌর কর্তৃপক্ষ। বিশ্বব্যাংকের আর্থিক সহযোগিতায় ২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে তিনতলা আধুনিক বাস টার্মিনালের কার্যাদেশ প্রদান করা হয় আলাউদ্দিন ট্রেডিং কোম্পানি লিমিডেটকে।
২০১৯ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজ শেষ করতে পারেনি। পরে পৌর কর্তৃপক্ষ আরো দুই বছর কাজের মেয়াদ বৃদ্ধি করে। প্রথম পর্যায় নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছিল ২৩ কোটি ২২ লাখ টাকা। পরে সেটি বাড়িয়ে ২৪ কোটি ৪৮ লাখ টাকা করা হয়েছে।
মাদারীপুরের বাসিন্দা আরিফুর রহমান বলেন, নতুন বাসস্ট্যান্ডে অনেক বছর ধরেই টার্মিনাল বানানোর কাজ চলতে দেখছি। কবে কাজ শেষ হবে জানি না। তবে নির্মাণ ব্যয় বেড়েছে প্রায় দেড় কোটি টাকা।
শহরের আরেক বাসিন্দা সাগর হাওলাদার বলেন, এক বছরের কাজ ৪ বছর ধরে চলছে। পৌর কর্তৃপক্ষের উচিত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে চাপ দিয়ে দ্রুত কাজটি করিয়ে নেয়া।
মাদারীপুর জেলা বাস ও মিনিবাস মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান হাওলাদার বলেন, ৪ বছর ধরে বাসস্ট্যান্ডে নতুন টার্মিনাল নির্মাণ কাজ চলায় ওখানে শহরের কেউ পরিবহন পার্কিং করে রাখতে পারে না। আমাদের সব পরিবহন গত শহরের রাস্তার উপর রাখা হয়। এতে জনগণের ভোগান্তি হচ্ছে।
মাদারীপুর পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে শ্রমিক ও মালামাল সংকটের জন্য আমাদের টার্মিনাল নির্মাণের কাজ কিছুটা বাধাগ্রস্ত হয়েছে। তবে নির্মাণ কাজ প্রায় শেষের পথে। টার্মিনালটি অত্যাধুনিক করা হচ্ছে। এখানে যাত্রীরা উন্নত সেবা পাবে।
ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান আলাউদ্দিন ট্রেডিং কোম্পানি লিমিটেডের সাইট ইঞ্জিনিয়ার মো. আমান বিশ্বাস বলেন, বাস টার্মিনালটির কাজ দ্রুত শেষ করার লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি। বেশিদিন লাগবে না, কাজটি শেষ করে ফেলব।
মাদারীপুর পৌরসভার মেয়র খালিদ হোসেন ইয়াদ বলেন, বিদেশি বাস টার্মিনালের আদলে আধুনিক বাস টার্মিনাল নির্মাণ করছি। সবকিছু মিলিয়ে সময় ও ব্যয় কিছুটা বেশি হচ্ছে। দ্রুত বাস টার্মিনালটির নির্মাণ কাজ শেষ করে চালু করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

June 2024
S M T W T F S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30