মিডিয়ার সংখ্যা বেশি হলে গুজব হ্রাস পায় ঃ মাহফুজ আনাম

প্রকাশিত: ১১:৪১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০১৮

মিডিয়ার সংখ্যা বেশি হলে গুজব হ্রাস পায় ঃ মাহফুজ আনাম

পেন ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-এর উদ্যোগে আজ জাতীয় প্রেসক্লাবে গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। সংস্থার প্রেসিডেন্ট কথাসাহিত্যিক মাসুদ আহমেদের সভাপতিত্বে বৈঠকে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন লিগ্যাল ইকোনমিস্ট মোঃ শাহজাহান সিদ্দিকী। প্যানেলিস্ট হিসেবে আলোচনা করেন- দ্য ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম, দৈনিক ইত্তেফাক সম্পাদক তাসমিমা হোসেন, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ শফিকুর রহমান, ব্রতী’র প্রধান নির্বাহী শারমিন মুরশিদ, পেন বাংলাদেশের নির্বাহী প্রেসিডেন্ট কবি কাজী রোজী এমপি, পেন বাংলাদেশের প্রধান উপদেষ্টা কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা প্রমুখ।

দ্য ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম বলেন- তথ্যের নির্ভরযোগ্যতার মান নিয়ে প্রশ্ন থাকার কারণেই গুজব ছড়ায়। ডিজিটাল অ্যাক্টের দ্বারা আমলাতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে মত প্রকাশের ব্যবস্থা হচ্ছে। কোনো পরোয়ানা ব্যতিত তল্লাশি, জব্দ, গ্রেফতার-এই একটি ধারা সমগ্র মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে নষ্ট করে। মিডিয়ার সংখ্যা বেশি হলে গুজব হ্রাস পায়। লাগামহীনতাও বন্ধ করা দরকার। এজন্য সুক্ষ্ম ব্যালেন্স আনা দরকার।

বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল বলেন- সাংবাদিকদের স্বাধীনতা রক্ষা করার জন্য যতটুকু চেষ্টা করতে পারছি, সুশীল সমাজ ও সাধারণ জনগণের জন্য আমরা ততটুকু করতে পারছি না। এজন্য সকল পর্যায় থেকে চেষ্টা করা দরকার। তিনি সংসদীয় কমিটির সঙ্গে যোগাযোগের বিষয়টি তুলে ধরেন।

পেন বাংলাদেশের প্রধান উপদেষ্টা কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা বলেন- ক্রিয়েটিভ রাইটাররা প্রশ্নের সম্মুখীন হতে পারেন। ইমাজিনেশনের সঙ্গে বাস্তবতার দ্বন্দ্ব থাকে। এজন্য লেখকদের প্রোটেক্ট করতে হবে।

ব্রতী’র প্রধান নির্বাহী শারমিন মুরশিদ বলেন- মত প্রকাশের স্বাধীনতা রক্ষায় সরকারের দায়বদ্ধতা আছে। সমাজের সমৃদ্ধির জন্য মেধা, ভাবনা-চিন্তার বিকাশ দরকার। প্রেস ক্লাউন্সিলের মতো জনগণের জন্যেও কাউন্সিল দরকার।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ শফিকুর রহমান বলেন- এ ধরনের আলোচনা বেশি বেশি প্রয়োজন। আইন স্বাধীনতা খর্ব করলে সমাজ এগুতে পারে না। তবে মত প্রকাশ সুষ্ঠুভাবে করার জন্য আইন দরকার। সবকিছু পরীক্ষা-নীরিক্ষা করে আইন চূড়ান্ত করা দরকার।

পেন বাংলাদেশের নির্বাহী প্রেসিডেন্ট কবি কাজী রোজী এমপি বলেন- আইন আইনের মতো চলছে, চলবে। আইন হোক জনগণের জন্য।

দৈনিক ইত্তেফাক সম্পাদক তাসমিমা হোসেন বলেন- দেশে জঙ্গি তৎপরতা চলছে। বলার স্বাধীনতা খর্বের ইতিহাস দীর্ঘদিনের। কথা বলার পেছনের প্রবণতাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা দেশের স্বার্থের কথা চিন্তা করে বাক স্বাধীনতার কথা চিন্তা করব।

পেন ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-এর প্রেসিডেন্ট ও বৈঠকের সভাপতি কথাসাহিত্যিক মাসুদ আহমেদ বলেন- আজকের এই গোলটেবিল বৈঠকের বিবেচ্য বিষয়গুলো নিয়ে স্পিকারের মাধ্যমে সংসদীয় স্ট্যান্ডিং কমিটির কাছে পেন ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ পৌঁছানোর উদ্যোগ গ্রহণ করবে।

বৈঠকের শুরুতে পেন ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-এর সেক্রেটারি জেনারেল ড. সৈয়দা আইরিন জামান স্বাগত বক্তব্যে রাউন্ড টেবিল কনফারেন্সের বিষয়বস্তুর জাতীয় গুরুত্ব উপস্থাপন করেন।

এছাড়া গোলটেবিল বৈঠকে অন্যান্য আলোচকের মধ্যে ছিলেন- কবি, অনুবাদক অধ্যাপক ড. মাসুদুজ্জামান, আফরোজা পারভীন, আলী নিয়ামত, শ্যামলী খান, মাহবুবা ফারুক, বারী মঞ্জু শেখ, নাহার ফরিদ খান প্রমুখ।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

লাইভ রেডিও

Calendar

April 2024
S M T W T F S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930