ঢাকা ১৪ই জুলাই ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই মহর্‌রম ১৪৪৬ হিজরি


মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থান ঠেকাতে কাজ করছে জতিসংঘ

redtimes.com,bd
প্রকাশিত ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২১, ১০:১৭ পূর্বাহ্ণ
মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থান ঠেকাতে  কাজ করছে জতিসংঘ

মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থান প্রতিহত করতে  কাজ  করছে জতিসংঘ । বিশ্ব সম্প্রদায়কে একত্রিত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। তিনি বলেন, ‘এই অভ্যুত্থান যাতে ব্যর্থ হয়, সেজন্য মিয়ানমারের ওপর পর্যাপ্ত চাপ তৈরিতে আমরা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে একত্রিত করার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করব।’ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে আজ বৃহস্পতিবার এ খবর জানানো হয়েছে।

জাতিসংঘের মহাসচিব আরো বলেন, ‘নির্বাচন উল্টে দেওয়া অগ্রহণযোগ্য এবং অভ্যুত্থান করা নেতাদের বুঝতে হবে যে, এটি দেশ পরিচালনার কোনো পদ্ধতি নয়।’

জাতিসংঘের মহাসচিব মিয়ানমারে আবারো সাংবিধানিক ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন, এই বিষয়টি নিয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে সবাই ঐক্যবদ্ধ হবে।

এদিকে, গত মঙ্গলবার বৈঠকে বসে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। তবে সেখানে চীন সমর্থন না করায় তারা কোনো যৌথ বিবৃতি দিতে পারেনি। যৌথ বিবৃতি দেওয়ার জন্য দরকার চীনের সমর্থন। কারণ নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচটি স্থায়ী সদস্যের মধ্যে একটি হলো চীন। আর সে কারণে ভেটো দেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে চীনের।

এছাড়া, বেইজিং দীর্ঘদিন থেকেই আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষণ থেকে মিয়ানমারকে রক্ষায় ভূমিকা পালন করেছে এবং অভ্যুত্থানের পর থেকেই সতর্ক করছে যে, মিয়ানমারের ওপর নিষেধাজ্ঞা অথবা আন্তর্জাতিক চাপ প্রয়োগ করলে পরিস্থিতি আরো খারাপ হবে।

এদিকে, আমদানি-রপ্তানি আইন লঙ্ঘনের দায়ে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চির বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেছে দেশটির পুলিশ। রাজধানী নেপিদোর একটি থানায় এ অভিযোগ দায়ের করা হয়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স গতকাল বুধবার এক প্রতিবেদনে জানায়, আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সু চিকে আটকে রাখার জন্য বলা হয়েছে দেশটির পুলিশের পক্ষ থেকে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, নেপিদোর একটি থানা থেকে প্রাপ্ত নথিতে বলা হয়েছে, সু চির বাসভবন অনুসন্ধান করে সামরিক অফিসাররা কয়েকটি রেডিও খুঁজে পেয়েছেন। এগুলো অবৈধভাবে আমদানি করা হয়েছিল। আর বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা হয়েছিল।

মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চিসহ নির্বাচিত সরকারি দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের আটক করে গত সোমবার দেশটির ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী। গত নভেম্বরের নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ এনে ক্ষমতা দখলে নেয় সেনারা। অভ্যুত্থানে নেতৃত্ব দেন সেনাপ্রধান ও সিনিয়র জেনারেল মিন অং হ্লাইং। সেনাবাহিনীর দাবি, সু চির দল এনএলডি অনিয়ম করে ওই নির্বাচনে একচেটিয়া জয়লাভ করেছে।

এরই মধ্যে সু চির সরকারের ২৪ জন মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীকে বরখাস্ত করে সেনাসদস্যদের দিয়ে নতুন করে কেবিনেট গঠন করেছে সেনা কর্তৃপক্ষ। ঘটনার শুরু থেকেই সু চির অবস্থান নিয়ে তাঁর দলের পক্ষ থেকে উদ্বেগ প্রকাশ করা হচ্ছিল।

এই পরিপ্রেক্ষিতে এনএলডির বরাত দিয়ে বুধবার বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, সু চিকে তাঁর নিজের কম্পাউন্ডে হাঁটাচলা করতে দেখা গেছে। এ ছাড়া দলের আরো কিছু নেতাকে আটকাবস্থা থেকে মুক্তি দিয়ে নিজেদের বাসায় পাঠানো হয়েছে। তবে তাদের গৃহবন্দি করেই রাখা হয়েছে। ফলে এনএলডির নেতারা একে অপরের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না।

সংবাদটি শেয়ার করুন

July 2024
S M T W T F S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031