মুক্তিযুদ্ধের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনে দেশের বাইরেও কমিটি গঠন করেছে বিএনপি

প্রকাশিত: ৬:৫৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৬, ২০২১

মুক্তিযুদ্ধের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনে দেশের বাইরেও কমিটি গঠন করেছে বিএনপি

মহান মুক্তিযুদ্ধের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনে দেশের বাইরেও আঞ্চলিক কমিটি গঠন করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপি।

গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে মুক্তিযুদ্ধের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনে জাতীয় কমিটি আহ্বায়ক খন্দকার মোশাররফ হোসেন একথা জানান।

খন্দকার মোশাররফ বলেন, আমরা বহির্বিশ্বে আমাদের জাতীয়তাবাদী শক্তির যারা প্রতিনিধি রয়েছেন, আমাদের দলের যেসব শাখা রয়েছে তাদেরকে মিলে আমরা আঞ্চলিক কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। মধ্যপ্রাচ্য আঞ্চলিক কমিটি, ইউরোপ আঞ্চলিক কমিটি, যুক্তরাজ্য আঞ্চলিক কমিটি ইতিমধ্যে গঠিত হয়েছে।

সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনে বিএনপি খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে আহ্বায়ক ও আবদুস সালামকে সদস্য সচিব করে ১৩৬ সদস্যের জাতীয় কমিটি, ৭ সদস্যের স্টিয়ারিং কমিটি, ১৫টি বিষয়ভিত্তিক কমিটি ও ১০টি বিভাগীয় সমন্বয় কমিটি গঠন করেছে।

এদিকে সকালে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সম্মাননা বিষয়ক কমিটির সভা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘এই বিএনপির স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের প্রতিষ্ঠিত দল, এই দল মুক্তিযোদ্ধাদের দল। আমরা দাবি করি, আমরা মুক্তিযোদ্ধাদের দল। সংখ্যাগরিষ্ঠ মুক্তিযোদ্ধারা এই দলে রয়েছেন।’

‘আমাদের দল এজন্য অত্যন্ত ভালোভাবে সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করতে চায়। আমাদের সকলের একটা আবেগ যে, এই মুক্তিযুদ্ধ যারা জীবন বাজী রেখে যুদ্ধ করেছেন, যারা প্রাণ দিয়েছেন, আমরা যে স্বাধীনতা চেয়েছিলাম সেই আকাঙ্ক্ষা আমাদের পূরণ হয়েছে কিনা। এটা অবশ্যই ৫০ বছরে আমাদের মূল্যায়ন করা প্রয়োজন। যারা আমরা যুদ্ধ করেছি তাদেরই দায়িত্বটা বেশি। তাই আমরা গুরুত্ব দিচ্ছি।’

তিনি বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের পরে ৫০ বছর পার হয়েছে। আমরা দেখেছি মুক্তিযুদ্ধকে নিয়ে, মুক্তিযুদ্ধের আকাঙ্ক্ষাকে নিয়ে এবং এই ৫০ বছরের আমাদের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে বিকৃত করার অনেক চেষ্টা চলছে।’

‘তাই যারা আমরা যুদ্ধ করেছি, যুদ্ধে সহযোগিতা করেছি এখনো বেঁচে আছি আমাদেরই দায়িত্ব নতুন প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাসটা তুলে ধরা, প্রকৃতটা জানিয়ে যাওয়া। সেজন্য আমাদের সারা বছর প্রকৃত ইতিহাস জানাতে হবে।’