মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানিতে ১০ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত: ৪:২০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৭

মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানিতে  ১০ জনের মৃত্যু

চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানিতে পদদলিত হয়ে অন্তত ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং আহত হয়েছেন আরও বেশ কয়েকজন। সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে চট্টগ্রামের আসকার দীঘি এলাকাস্থ রিমা কমিউনিটি সেন্টারে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

যেসব স্থানে মেজবানের আয়োজন করা হয়েছে সেগুলো হলো: চট্টগ্রাম নগরীর পাঁচলাইশ থানার বিপরীতে দি কিং অব চিটাগাং, জিইসি মোড়ের কে স্কয়ার কমিউনিটি সেন্টার, চকবাজারের কিশলয় কমিউনিটি সেন্টার, পাঁচলাইশ আবাসিক এলাকায় অবস্থিত সুইসপার্ক কমিউনিটি সেন্টার, লাভলেইন সড়কের স্মরণিকা কমিউনিটি সেন্টার, মোহাম্মদপুরের এন মোহাম্মদ কনভেনশন হল, বাকলিয়া থানা এলাকার কেবি কনভেনশন হল, কাজীর দেউরি এলাকার ভিআইপি ব্যাংকুইট কমিউনিটি সেন্টার, সাগরিকা স্কয়ার ও ডবলমুরিং থানা এলাকার গোল্ডেন টাচ কমিউনিটি সেন্টার।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রিমা কমিউনিটি সেন্টারে মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানিতে ভিড়ের চাপে পদদলিত হয়ে এ প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন অন্তত ১০ থেকে ১২জন । এদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।চট্টগ্রামের পুলিশ কমিশনার ইকবাল বাহার বলেন, চট্টগ্রামের বেশকয়েকটি কমিউনিটে সেন্টারে কুলখানির ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর মধ্যে রিমা কমিউনিটি সেন্টারে অতিরিক্ত ভিড়ের চাপে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তিনি আরও বলেন, অন্যান্য সকল কমিউনিটি সেন্টারে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।

এরআগে পারিবারিক সূত্র জানা গিয়েছিল, চট্টগ্রামের ১১টি স্বনামধন্য কনভেনশন হলে এ মেজবান অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া মহিউদ্দিন চৌধুরীর বাসভবন ২নং গেইটের চশমা হিলে মহিলাদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা করা হবে। হিন্দু, বৌদ্ধ খ্রিস্টান ও অন্যান্য ধর্মের অনুসারীরে জন্য মেজবানের আয়োজন করা হয়েছে জামাল খান এলাকার রীমা কনভেনশন সেন্টারে। মেজবানিতে মোট ৮০ হাজার মানুষকে খাওয়ানো হবে।

সদ্য প্রয়াত চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক সিটি মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানী উপলক্ষে ৮০ হাজার নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের জন্য মেজবানের আয়োজন করা হয়েছিল আজ সোমবার।চট্টগ্রাম বন্দর নগরীর আশকার দীঘির পাড়ে সনাতনী ধর্মালম্বীদের জন্য আয়োজিত চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র আলহাজ্ব মহিউদ্দীন আহমেদের কুলখানী অনুষ্ঠানে রিমা কমিউনিটি সেন্টারে পদদলিত হয়ে ১০ জনের মৃত্যুতে ওয়ার্কার্স পার্টি গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। আজ এক বিবৃতিতে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড রাশেদ খান মেনন ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, এ ধরনের ঘটনা সম্পর্কে আগাম প্রস্তুতির অভাব ছিল, যার কারণে ১০ জনের মৃত্যু এবং ৫০ জনের অধিক আহত হয়েছে। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে নিহতদের পরিবারে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ ও আহতদের সুচিকিৎসা ব্যবস্থা করার আহ্বান জানান।