ঢাকা ২৪শে জুলাই ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই মহর্‌রম ১৪৪৬ হিজরি


মৌলভীবাজারের নাজিরাবাদে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মহিলাকে শ্লীলতাহানির চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে মাথার চুল কেঁটে ফেলেছে এক দুর্বৃত্ত

Red Times
প্রকাশিত জুলাই ৯, ২০২৪, ১১:০৫ অপরাহ্ণ
মৌলভীবাজারের নাজিরাবাদে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মহিলাকে শ্লীলতাহানির চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে মাথার চুল কেঁটে ফেলেছে এক দুর্বৃত্ত

জাফর ইকবাল মৌলভীবাজার থেকে,

মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১০নং নাজিরাবাদ ইউনিয়নের আগনশী গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ঘরে প্রবেশ করে হামিদা বেগম (৩০) নামে এক মহিলাকে শ্লীলতাহানির চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে মাথার চুল কেঁটে ফেলেছে কুরুষ মিয়া নামের এক দুর্বৃত্ত। তাকে বাধা দিতে গিয়ে দা এর কুপে আহত হয়েছেন ভিকটিমের স্বামী আবুল হোসেন। এ সময় তাদের প্রতিবন্ধী মেয়ে জুবলী আক্তারকে গলা টিপে প্রাণে হত্যার চেষ্টা করে কুরুষ মিয়া (৪২)।

সোমবার ৮ জুলাই সদর থানার ১০নং নাজিরাবাদ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড আগনশী গ্রামে সন্ধ্যা ৭টায় এ ঘটনাটি ঘটেছে।

ভিকটিম হামিদা বেগম জানান, আমার প্রতিবেশী কুরুষ মিয়া সন্ধ্যার পর মুহুর্তে আমার ঘরে দা হাতে নিয়ে প্রবেশ করে। এ সময় আমার স্বামী হাঁস খোঁজতে বাহিরে ছিলেন। এই সুযোগে কুরুষ মিয়া আমার শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। আমার বাক প্রতিবন্ধী মেয়ে জুবলী আক্তার চিৎকার চেচামেচি করলে তাকে গলা টিপে হত্যার চেষ্টা করে। পরে আমার সাথে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে আমার স্বামী চলে এসে তাকে বাধা দেয়ার চেষ্টা করলে সে দা দিয়ে কুপিয়ে আমার স্বামীকে মারাত্মক আহত করে। পরে আমার হল্লা চিৎকারে আশপাশের মানুষ ও আমার আত্মীয় স্বজনরা এসে আমাদেরকে উদ্ধার করে। এ সময় কুরুষ মিয়ার ছেলে জুবেল, রাসেল ও তার ভাগনা সামাদ এসে তাকে নিরাপদে নিয়ে চলে যায়। আমার ভাইপো তছলিম মিয়া আমার স্বামী, মেয়ে ও আমাকে মৌলভীবাজার হাসপাতালে এনে ভর্তি করে।

গত ৬ জুলাই কুরুষ মিয়ার নিকট এক বছর আগের পাওনা ২০ হাজার টাকা চাওয়ায় সে আমাকে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে তার বাড়িতে গাছের সাথে বেধে মারধর করে। স্থানীয় ইউপি সদস্য সোহেল মিয়া আমাকে কুরুষ মিয়ার হাত থেকে উদ্ধার করতে না পেরে মৌলভীবাজার মডেল থানায় ফোন দিলে পুলিশ গিয়ে আমাকে উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে মৌলভীবাজার মডেল থানায় একটি মামলা হয়। এই মামলায় জামিন নিয়ে এসে আমার সাথে এই ঘটনাটি ঘটায়।

ভিকটিমের স্বামী আবুল হোসেন বলেন, আমরা এখানো বন্যায় পানিবন্দি। গৃহপালিত হাঁসগুলো সন্ধ্যায় আমি বাড়ির আশপাশে খোঁজতেছিলাম। বাড়িতে শোরগোল শুনে এসে দেখি কুরুষ মিয়া আমার স্ত্রীর চুল কেটে দিয়েছে এবং আমার প্রতিবন্ধী মেয়েকে গলা টিপে প্রাণে হত্যার চেষ্টা করছে। আমি বাঁধা দিতে গেলে কুরুষ মিয়া তার হাতে থাকা দা দিয়ে আমাকে কুপিয়ে আহত করে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

July 2024
S M T W T F S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031