মৌলভীবাজারে বাঘের আক্রমনে আহত-৭

প্রকাশিত: ১১:০৬ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৭

মৌলভীবাজারে বাঘের আক্রমনে আহত-৭

মৌরভীবাজার প্রতিনিধি:  মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার রহিমপুর ইউনিয়নের কালেঙ্গা গ্রামে মেছো বাঘের আক্রমনে ৭ জন আহত হয়েছেন। শনিবার (২৩ডিসেম্বর) রাত সাড়ে আটটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহত সাতজনকে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে নিয়ন্ত্রনহীন মেছো বাঘের কামড়ে আশংকাজনক অবস্থায় পারুল বেগম নামে এক মহিলাকে সিলেট এমএ.জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। আহতারা হলেন, তাওহিদ মিয়া (১৯) শরিফ মিয়া, (১৬) আঙুর মিয়া , (২২) পারুল বেগম, (৪৫) মনই মিয়া, (৪৫) রাজু মিয়া, (২১) ও জাহেদ মিয়া (২১)। গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায় , গত দুইদিন যাবত স্থানীয় ইকোপার্ক থেকে ছুটে আসা মেছো বাঘটি কালেঙ্গা গ্রামে প্রবেশ করে রাতের আঁধারে গরু ,মহিষ , ছাগল , কুকুর সহ সাধারণ মানুষের উপর আক্রমন করে আহত করে পালিয়ে যায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে রহিমপুর ইউনিয়নের সদস্য মুজিবুর রহমান জানান, আমরা গ্রামবাসীকে সাথে নিয়ে মেছো বাঘের আক্রমন থেকে বাঁচতে রাতভর পাহারা দিচ্ছি। তিনি বলেন , গ্রামে মেছো বাঘটি প্রবেশ করায় সাধারণ মানুষ রয়েছেন উদ্বেগ আর আতংকে।

এদিকে মেছো বাঘটিকে আটক কিংবা উদ্ধারে স্থানীয় বন বিভাগের কর্মকর্তাদের অবহেলার বিষয়টি জানিয়ে ইউপি সদস্য মুজিব বলেন, তাদেরকে বার বার বলার পরও তারা এ বিষয়ে কার্যকর কোন উদ্যেগ নিচ্ছেন না।
অপরদিকে বনবিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা ইমাম উদ্দিনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বাঘটিকে আটক কিংবা উদ্ধার না করার বিষয়টি স্বীকার বলেন, আমরা খবর পেয়ে লোকজন পাঠিয়েছি , বাঘটি জঙ্গলের ভিতরে প্রবেশ করার কারনে এবং রাত হওয়ায় আমরা উদ্ধার করতে পারিনি । তবে সকালে আমরা লোক পাঠিয়ে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেব।