মৌলভীবাজারে বাঁধ ভেঙ্গে তলিয়ে গেছে শহরের একঅংশ

প্রকাশিত: ৫:০৩ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৭, ২০১৮

মৌলভীবাজারে বাঁধ ভেঙ্গে তলিয়ে গেছে শহরের একঅংশ

 

মোঃ আব্দুল কাইয়ুম:
মৌলভীবাজারে  গভীররাতে  মনুনদীর প্রতিরক্ষাবাঁধ ভেঙ্গে মুহুর্তেই পানির ¯স্রোত তীব্র আকার ধারণ করে শহরে  প্রবেশ করে । এতে শহরের পশ্চিম অংশ  তলিয়ে যায় । রোববার (১৭জুন) রাত দেড়টার দিকে পৌর মিনিবাস স্ট্যান্ডের পিছনে মনুনদীর প্রতিরক্ষাবাঁধের পৌরসভা  নির্মিত আরসিসি দেয়ালটি ধসে পড়লে মুহুর্তেই শহরের বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয় । এরই মধ্যে মানুষজন আতঙ্কে বাসাবাড়ি থেকে বের হয়ে   অন্যত্র চলে যায়। সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, শহর প্রতিরক্ষা বাঁধের প্রায় ৩০–৪০ ফুট মনু নদীর বাঁধ ভেঙ্গে তীব্র বেগে পানি ছড়িয়ে পড়ছে চারিদিকে
এতে , বড়হাট, কুসুমবাগ ,বড়কাপন, হিলালপুর, ঘরুয়া, বাহারমর্দন, ভুজবল, খিদুরসহ ১১নং মোস্তফাপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম ও তার আশেপাশের এলাকা  ডুবে যায় । পানিবন্দি  হয়েছেন এসব এলাকার বাসিন্দারা।
এ পরিস্থিতিতে সেনাবাহিনী,পুলিশ,ফায়ার সার্ভিস প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা সহ সাধারণ মানুষ কাজ করে যাচ্ছেন।
বর্তমানে মৌলভীবাজারে মনু নদীর পানি বিপদসীমার ১৭৬ সেমি: উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
আতঙ্কিত শহরবাসীর উদ্যেশে এরই মধ্যে জেলা প্রশাসক মো: তোফায়েল ইসলামের নির্দেশে মাইকিং করে শহরবাসীকে নিরাপদ স্থানে চলে যাওয়ার জন্য আহবান জানানো হয়েছে।
এদিকে বানভাসি মানুষকে প্রাথমিকভাবে পৌরসভা ও জেলা প্রশাসন নির্ধরিত আশ্রয়কেন্দ্র সমূহে চলে যেতে বিভিন্ন মসজিদ থেকে মাইকিং করে জানানো হচ্ছে। কেন্দ্রগুলো হলো মৌলভীবাজার সরকারী কলেজ, মৌলভীবাজার সরকারী মহিলা কলেজ, প্রাইমারি টিচার্স ইনস্টিটিউট, পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ ও সদর উপজেলা পরিষদ ভবন।