ঢাকা ২৪শে জুলাই ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই মহর্‌রম ১৪৪৬ হিজরি


মৌলভীবাজারে সীমানা দেয়াল নিয়ে দু’পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ,আহত-৬

abdul
প্রকাশিত মার্চ ২৯, ২০১৮, ০৭:১৭ অপরাহ্ণ
মৌলভীবাজারে সীমানা দেয়াল নিয়ে দু’পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ,আহত-৬

সৈয়দ ময়নুল ইসলাম রবিন:  মৌলভীবাজারে বাড়ির সীমানা দেয়াল নির্মাণকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের বাধা আর অতর্কিত হামলায় মা ছেলে সহ ৬ জন গুরুতর আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

গত মঙ্গলবার (২৭ মার্চ) বিকাল ৪ টার দিকে জেলা সদরের ১২ নং গিয়াস নগর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের আনিকেলিবড় গ্রামে এই রক্তক্ষয়ী ঘটনাটি ঘটে।

এ ঘটনায় মৃত কনর মিয়ার স্ত্রী বেগম বিবি (৬৫) নামের এক মহিলা ও তার ছেলে নুরুল ইসলাম (৩১) সহ ছয় ব্যক্তি আহত হয়েছেন,সংঘর্ষের ঘটনায় আহতদের মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

সূত্রে জানা যায়,আনিকেলিবড় গ্রামের সিরাজ মিয়া তার নিজ বাড়ির সীমানা দেয়াল নির্মাণ এর জন্য শ্রমিকরা কাজ করছিল,এমন সময় প্রতিবেশী আহাদ মিয়া ও তার ভাই বকুল মিয়া সহ অন্য ভাইয়েরা সীমানা দেয়াল নির্মাণ কাজে বাধা দেয়,এসময় বাড়ির মালিক সিরাজ মিয়া সেখানে উপস্থিত না থাকলে বাধা দেয়ার কারন জানতে চান প্রতিবেশী বেগম বিবি ও অন্যান্য প্রতিবেশীরা।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আহাদ মিয়া,বকুল মিয়া,বুলু মিয়া,আনর মিয়া,হারুন মিয়া,সিপার মিয়া সহ প্রায় ১০/১২ জন মিলে অতর্কিত ভাবে দেশিয় অস্ত্র নিয়ে বেগম বিবি ও তার সাথে থাকা প্রতিবেশীদের উপর হামলা চালায় এক পর্যায়ে অন্য প্রতিবেশীরা আঘাত পেয়ে প্রাণ বাঁচাতে পালিয়ে গেলেও পালাতে পারেননি বৃদ্ধা বেগম বিবি।

৬৫ বৎসর বয়স্ক মহিলা বেগম বিবিকে প্রাণে মারার উদ্দেশ্যে আহাদ মিয়া পাশে থাকা কাদাপানির ডুবায় চুল ধরে চুবাতে থাকেন এবং পা ধারা লাথির মাধ্যমে কাদার মধ্যে শরীরের অর্ধেক অংশ ঢুকিয়ে দেন, মাকে এরকম নির্যাতনের খবর পেয়ে তাকে বাঁচাতে ছুটে আসেন বেগম বিবি’র ছেলে নুরুল ইসলাম (৩১) তাকেও এলোপাথাড়ি লাঠির ধারা আঘাত করতে থাকে আহাদ সহ তার অন্য ভাইয়েরা, তাদেরকে উদ্ধার করতে আসেন সালমান (২৩) নামের এক যুবক তাকেও লাঠি ধারা সামনে থেকে আঘাত করেন আনর মিয়া যার ফলে তার মাথা ফেটে যায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান আহাদ ও তার ভাইয়েরা অত্যন্ত খারাপ প্রকৃতির লোক এরা যে কোন কারণে মানুষের সাথে খারাপ ব্যবহার করে।

যে বাড়ির সীমানা দেয়াল নির্মাণ নিয়ে এই ঘটনা ঘটনা ঘটে সে বাড়ির মালিক সিরাজ মিয়া (৬০) বলেন আহাদের উপর প্রায় ২০/২৫ টি মামলা রয়েছে,কিছু দিন আগে সে জেল থেকে জামিন নিয়েছে, জামিনে বাইরে আসার পর থেকে আমরা আতংকে আছি।

এবিষয় নিয়ে অভিযুক্ত আহাদ মিয়ার সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি এবিষয় নিয়ে কথা না বলার জন্য বলেন,কেন কথা বলা যাবেনা জানতে চাইলে তিনি দাম্ভিকতার সহিত বলেন ” কথা কইয়া কিতা করতাম, কেইস করউকদে কেইস করিয়া কিতা করত পারে দেখমুনে” (কথা বলে কি করব,কেইস করুক কেইস করে কি করতে পারে দেখব)।

বিষয়টি নিয়ে ১২ নং গিয়াস নগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযুদ্ধা গোলাম মোস্তফা বলেন এব্যাপারে আমি এখনও কিছু জানিনা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

July 2024
S M T W T F S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031