যকারণে দক্ষিণ সুরমার ওসিকে শাস্তিমুলক বদলী করা হলো

প্রকাশিত: ১১:০৯ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৭

যকারণে দক্ষিণ সুরমার ওসিকে  শাস্তিমুলক বদলী করা হলো

যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী নেতা হাবিবুর রহমান হাবিবের পিতা এমএ গনিকে নিয়ে কটুক্তি করায় দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি শাহ হারুনুর রশিদকে টট্রগ্রাম রেঞ্জে শাস্তিমুলক বদলী করা হয়েছে। মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার জেদান আল মুসা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। গত ১৬ আগষ্ট বরইকান্দি ইউনিয়ন পরিষদে ভিজিএফ বিতরণী অনুষ্ঠানে আয়োজিত জনসভায় ওসি হারুন আওয়ামীলীগ নেতা ও সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য প্রার্থী হাবিবের পিতাকে নিয়ে কটুক্তি করেন। ক্ষমতাসীন দলের নেতার পিতাকে নিয়ে ওসি কটুক্তি করায় আওয়ামী পরিবারের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়। দায়িত্বশীলদের মধ্যে ওসির বক্তব্য নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া ও চাপা উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরে এ বিষয়টি প্রধান মন্ত্রীর কার্যালয়ে অভিযোগ করা হয়। অভিযোগের পাওয়ার পর বিষয়টি খতিয়ে দেখতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে নির্দেশ দেয়া হয় পুলিশের আইজি কেএম শহিদুল হককে। আইজির নির্দেশে এসএমপি পুলিশের একটি টিম তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পায়। এ ব্যাপারে স্থানীয় আওয়ামীলীগের কয়েক নেতার স্বাক্ষ্যও নেয়া হয়। পরে তদন্ত টিম ঘটনার বিস্তারিত উল্লেখ করে উর্দ্ধতনদের কাছে প্রতিবেদন দেয়। প্রতিবেদন পাওয়ার পর ওসির বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক বদলীর নির্দেশ দেয়া হয়। পুলিশের একটি সুত্র জানায় ওসির বিরুদ্ধে এছাড়াও আরো বেশ কিছু অভিরেযাগ রয়েছে। ওসি হিসাবে দক্ষিণ সুরমায় যোগদান করেই সিলামে একটি জনসভায় স্থানীয় এমপিকে নিয়েও কটুক্তি করেন। ঈদুল আযহা উপলক্ষ্যে পশুর হাট নিয়ে তিনি বিতর্কিত ছিলেন । কদমতলীস্থ পশুর হাট থেকে বিশাল অংকের ভাগ পান। নিয়মিত বখরা নেন টার্মিণাল এলাকার ফুটপাত থেকে। অপরাধীদের সাথে তার সংখ্যতা রয়েছে। জুয়ার আসর ও তীর খেলা খেকে বিপুল অংকের মাসোয়ারা নিতেন। বিতর্কিত কর্মকান্ড নিয়ে তোপের মুখে পড়বেন এমন আতংকে আইন শৃংখলা কমিটির মিটিংয়ে যেতেননা। গত ২৪ আগষ্ট আইন শৃংখলাপ কমিটির সভায় তার অনুপস্থিতির বিষয় নিয়েও আলোচনা হয়।

ছড়িয়ে দিন