রক্তে ভেজা বুক

প্রকাশিত: ৩:৫২ অপরাহ্ণ, মে ২১, ২০২১

রক্তে ভেজা বুক

ক্যামেলিয়া আহমেদ

 

দেখে নাও,দেখে নাও,ঐ বর্বরোচিত অগ্নিখেলা
মানুষের অসহায়ত্বের করুন দৃশ্য,বেঁচে থাকার আকুতি!

কতোটা অপারগতার কাছে হেরে যাচ্ছি আমরা !
এক দিকে মহামারী আরেক দিকে কোন্দল !
থামছে না কোনটাই !

কি অপ্রসন্ন ভাগ্য,জন্ম থেকেই রপ্ত করতে হয় বেঁচে থাকার কৌশল,তবু ও
রেহাই নেই সহিংসতার বলি ঠেকাতে !

আসল সত্য তাই যে,আমরা দুর্বলচিত্তে
ধীরে ধীরে হেটে যাচ্ছি মৃত্যুর দিকে !
আর কতোকাল রপ্ত করা কৌশলে সাবধানী হওয়া যায় !

ছোট ছোট শিশুর রক্তাক্ত শরীর, অবয়ব
বুকের ভেতর চোখের ভেতর রক্ত ঝরায় !
ক্রোধে অভিশাপে লিপ্ত হই,লেপ্টে যাই ওদের রক্তে।
এও অপারগতাই অনুভূতি।
ঘৃণায় কি আর প্রায়শ্চিত্ত হয় !
যখন প্রয়োজন বিশ্বের একতা,আগুন জ্বালা।

এই বর্বরোচিত খেলায় যারা নিশ্চুপ !
তারা কি চায়,কোন্দল নাকি
কোন এক জাতীর অস্তিত্ব বিলীন !

তারা তো জানে নিশ্চই বিলীন হওয়া গর্ভেও আবার
নতুন করে গজিয়ে উঠে ঘাস,ভরে উঠে সবুজে !
জলের উৎস তৈরী হয় সেই মাটি গর্ভ হতেই !

ধ্বংসের খেলা খেলে
কোন জাতী নিস্তার পাইনি কোনকালে !
তারা দু’চোখে যা দেখছে তা অভিলাষ নয়,অভিশাপ !

এই অপশক্তি অচিরেই হয়তো ধারন করবে পঙ্গুত্ব !
সতেরোতেও ঘটেছিলোছিলো এমনটাই !
দেখো আগুনের চোখ খুলে,সময় বদলায় !

অসহায়দের বুকের জমিন
গায়ের সফেদ বসন
রক্তে যখন রাঙিয়ে দিলে
এটাই তবে ভূষণ !

ছড়িয়ে দিন