রসিক নির্বাচনে প্রধান তিন দলের অংশগ্রহণ চোখে পড়ার মত

প্রকাশিত: ৭:০৬ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২০, ২০১৭

রসিক নির্বাচনে প্রধান তিন দলের অংশগ্রহণ চোখে পড়ার মত

রংপুর সিটি করপোরেশন রসিক  নির্বাচনে প্রধান তিন দলের অংশগ্রহণ চোখে পড়ার মত । সরজমিনে ঘুরে সেখানে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ভোটের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। দলীয় প্রতীকেই ভোট হচ্ছে বৃহস্পতিবার।একটানা ভোটগ্রহণ চলবে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ।

ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ যেমন জয়ের প্রত্যাশা করছে, তেমনি দলীয় চেয়ারপারসন এইচ এম এরশাদের শহরে জয়ের আশায় বুক বেঁধেছে জাতীয় পার্টিও। আর বিএনপি ভোট কারচুপির আশঙ্কা প্রকাশ করলেও মাঠে তাদেরকে হতাশ মনে হচ্ছে না ।

নির্বাচন কমিশন বলছে, নির্বিঘ্ন ভোট করতে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এ নির্বাচনে কোনো ধরনের অনিয়ম হবে না, এটাকে মডেল নির্বাচন হিসেবে উপহার দিতে চায় সাংবিধানিক সংস্থাটি।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, এ নির্বাচনের দিকে তাকিয়ে আছে সবাই।

প্রধান দলগুলোর লড়াইয়ের চেয়ে সুষ্ঠু নির্বাচন দেখতে চান তারা; যাতে মানুষের আস্থা বাড়ে এবং অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে বর্তমান ইসির সক্ষমতা সবার কাছে প্রতিফলিত হয়।

রংপুর সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র সরকার বলেছেন, উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। পর্যাপ্ত আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী মোতায়েন রয়েছে। শান্তিপূর্ণ ভোট করতে বদ্ধপরিকর আমরা।

রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক বলেছেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানে আইন-শৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কেউ বিশৃঙ্খলার চেষ্টা করলে তা কঠোর হাতে দমন করা হবে।

বুধবার ১৯৩টি ভোট কেন্দ্রের জন্য ব্যালট বাক্স ও ব্যালট পেপার বিতরণ করা হয়েছে। এসময় আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রির্টানিং কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র সরকার, রংপুর পুলিশ লাইন্স মাঠে রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক, জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জিএম সাহাতাব উদ্দিন, আনসার ভিডিপির কমান্ডার আবদুস ছামাদসহ ঊর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
মেয়র পদে ৭ প্রার্থী; ৩৩টি সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ২১১ জন এবং ১১টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলর পদে ৬৫ জন।
ভোটার ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৮৯৪ জন। পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৯৬ হাজার ২৫৬; নারী ১ লাখ ৯৭ হাজার ৬৩৮ জন।
মোট ভোট কেন্দ্র ১৯৩। ভোটকক্ষ ১১৭৮টি। একটি কেন্দ্রে ইভিএম ব্যবহারের প্রস্তুতি; এটি হল ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের ১৪১ নম্বর কেন্দ্র সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজ। এ কেন্দ্রের ৬টি বুথে ইভিএমে ভোট দিতে পারবেন ২ হাজার ৫৯ ভোটার।

মেয়র প্রার্থী: আওয়ামী লীগের সরফুদ্দীন আহমেদ ঝন্টু (নৌকা), জাতীয় পার্টির মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা (লাঙ্গল), বিএনপির কাওসার জামান বাবলা (ধানের শীষ), বাসদের আবদুল কুদ্দুস (মই), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের এ টি এম গোলাম মোস্তফা বাবু (হাতপাখা), ন্যাশনাল পিপলস পার্টির সেলিম আখতার (আম) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ (হাতি)।