রাজনীতি: বাইরে উত্তাপ, ভিতরে সমঝোতার চেষ্টা

প্রকাশিত: ১১:৫০ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৫, ২০২৩

রাজনীতি: বাইরে উত্তাপ, ভিতরে সমঝোতার চেষ্টা
সদরুল আইনঃ
আওয়ামী লীগ-বিএনপি এখন মুখোমুখি। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দুটি রাজনৈতিক দল এখন শক্তি প্রদর্শনের ব্যস্ত রয়েছে।
২৭ জুলাই ঢাকায় মহাসমাবেশ ডেকেছে বিএনপি। আর আওয়ামী লীগ ডেকেছে শান্তি সমাবেশ। আওয়ামী লীগ এবং বিএনপির পাল্টাপাল্টি মুখোমুখি কর্মসূচি এটিই প্রথম নয়। এর আগেও গত ১৬ জুলাই দুই দলই মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছিল।
তবে সেখানে কোন বড় ধরনের গোলযোগ ঘটেনি। ঢাকার বাইরে বিএনপি এবং আওয়ামী লীগের মধ্যে বিচ্ছিন্ন কিছু সহিংসতার ঘটনা ঘটলেও রাজনৈতিক পরিস্থিতি এখনও সহনীয় মাত্রায় রয়েছে।
যদিও যেকোনো সময় পরিস্থিতি উত্তপ্ত হতে পারে বলে কেউ শঙ্কা প্রকাশ করছে। তবে বিভিন্ন মহল বলছে, রাজনীতিতে বাইরে যতই উত্তাপ হোক ভেতরে ভেতরে সরকার এবং বিএনপির মধ্যে সমঝোতার চেষ্টা চলছে। নেপথ্যে এই সমঝোতাই রাজনীতির গতি-প্রকৃতি নির্ধারণ করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
আওয়ামী লীগ-বিএনপি দুই দলই এক দফা ঘোষণা করেছে। যদিও তারা প্রকাশ্যে বলছে, কোনো আলোচনা নয়, কোন সংলাপ নয়। কিন্তু দলের একাধিক সূত্র থেকে নিশ্চিত হয়েছে যে দুটি রাজনৈতিক দলের মধ্যে সমঝোতার একটা নীরব প্রচেষ্টা চলছে।
আগামী নির্বাচনের আগে নেপথ্যের এই সংলাপ দৃশ্যমান হতে পারে। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, বিএনপিকে নির্বাচনে আসা এবং একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন আন্তর্জাতিক ভাবে উপস্থাপনের জন্য আওয়ামী লীগ কাজ করে যাচ্ছে।
আওয়ামী লীগের সঙ্গে আন্তর্জাতিক মিত্ররাও এ নিয়ে কথা বলছে। বিএনপির একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলা হয়েছে বলেও নিশ্চিত হওয়া গেছে।
বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সরকারের ঊর্ধ্বতন মহলের একাধিক বৈঠকের খবর পাওয়া যাচ্ছে। এই সমস্ত বৈঠকগুলোতে নির্বাচনের একটি সমঝোতার রূপরেখা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে।
 বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া, তারেক জিয়াকে নির্বিঘ্নে দেশে ফেরা অনুমতি, নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা এবং আটক নেতাকর্মীদের মুক্তি প্রদান করা সহ বিভিন্ন দাবি এখন আলোচনার টেবিলে রয়েছে।
তবে নির্বাচনকালীন সরকারের ব্যাপারেও সরকারকে ছাড় দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে বিএনপি—এমন তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা হ্রাস, জাতীয় সংসদ ভেঙে দেওয়া এবং নির্বাচনকালীন সরকারে যারা মন্ত্রী থাকবেন তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না এমন কতগুলো বিষয়কে সামনে নিয়ে আসা হয়েছে।
তবে বিভিন্ন সূত্রগুলো বলছে, বেগম খালেদা জিয়া এই আলাপ-আলোচনার গতিকে অব্যাহত রাখার জন্য তারেক জিয়ার সঙ্গে আলোচনা করতে বলেছেন। যদিও সরকারের পক্ষ থেকে এতদিন তারেক জিয়ার সঙ্গে আলাপ আলোচনার ব্যাপারে উৎসাহ ছিল না।
কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে তারেক জিয়ার সঙ্গেও সরকারের যোগাযোগের খবর পাওয়া যাচ্ছে এবং এই যোগাযোগ এখন আগের চেয়ে বৃদ্ধি পেয়েছে। আর এই যোগাযোগের ফলে শেষ পর্যন্ত নির্বাচনের আগে একটি বড় ধরনের রাজনৈতিক সমঝোতা দেখা দিতে পারে বলে বিভিন্ন মহল মনে করছেন।
এই সমঝোতায় ভারত এবং চীনও অংশগ্রহণ করছে বলে বিভিন্ন সূত্রগুলো নিশ্চিত করেছে। ফলে বাইরে রাজনীতিতে যতই উত্তাপ উত্তেজনা থাকুক না কেন ভিতর একটি সমঝোতার নীরব প্রচেষ্টা দৃশ্যমান হচ্ছে ক্রমশ। আর সেই প্রচেষ্টা দেশকে নির্বাচনের মুখে নিয়ে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
আওয়ামী লীগের একজন নেতা বলেছেন, প্রকাশ্য সমঝোতা করলে নানা মহল হস্তক্ষেপ করে এবং সমঝোতা ভেস্তে দেওয়ার জন্য একটি মহল তৎপর। আর এ কারণে সবকিছু হচ্ছে গোপনে।
তবে বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে রাজনৈতিক সমঝোতা নয়, সরকারের বিভিন্ন মহল তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে। তবে তারা বলেছেন যে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি ছাড়া কোনো রাজনৈতিক সমঝোতা এখন তাদের পক্ষে সম্ভব নয়।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

লাইভ রেডিও

Calendar

April 2024
S M T W T F S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930