রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা আছে বলেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে ঃ স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৫:১৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ২০, ২০১৮

রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা আছে বলেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে ঃ স্বাস্থ্যমন্ত্রী

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলে এ দেশে সংখ্যালঘুরা নিরাপদে থাকেন।
তিনি ব্যাখ্যা করে বলেন, ‘ কারণ যে কোন সমস্যা নিয়ে আপনারা আমাদের সাথে এসে কথা বলতে পারেন। আমরাও আপনাদের সকল ধরনের সহযোগিতা করে থাকি।’
মোহাম্মদ নাসিম আজ শুক্রবার ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরের মেলাঙ্গনে মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির সভাপতি ডি এন চ্যাটার্জীর সভাপতিত্বে খাদ্যমন্ত্রী এডভোকেট কামরুল ইসলাম, সংসদ সদস্য হাজী মো. সেলিম ও পংকজ দেবনাথ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডা. দিলীপ রায়, মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট শ্যামল কুমার রায় প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে মঙ্গল প্রদীপ জ্বালিয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন ভারতীয় হাই কমিশনের ডেপুটি হাই কমিশনার ড. আদর্শ সাইকা।
আগামী নির্বাচনে আবারও আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করতে দেশবাসীর প্রতি আহবান জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, দেশের জনগণ ২০০১ সালে বিএনপি-জামায়াত জোটের ভয়াবহতা দেখেছে। ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে নির্বাচনে জয়লাভের পর তারা কিভাবে সংখ্যালঘুদের উপর নির্মম অত্যচার ও নির্যাতন চালিয়েছে। দেশের মানুষ সেই ভয়াবাহতা আর দেখতে চায় না। তাই আগামী নির্বাচনে দেশের মানুষ আবারও আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবে।
তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির বিজয় ছাড়া কোন বিকল্প নেই। স্বাধীনতা বিরোধীরা যদি ক্ষমতায় আসে তাহলে এদেশের সংখ্যালঘুরা নির্যাতনের শিকার হবে। বাংলাদেশ হবে জঙ্গিদের দেশ।
আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বলেন, দেশে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা না থাকলে দেশের উন্নয়ন হয় না। বাংলাদেশে এখন রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা আছে বলেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশে বিভিন্ন অবকাঠামো গড়ে উঠছে। সকল ধর্মের মানুষ নিজ নিজ ধর্মীয় উৎসব আনন্দের সাথে পালন করছে।
সংবিধান অনুযায়ি আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে জানিয়ে তিনি বলেন, সংবিধানের বাইরে আমরা যাবো না। আমেরিকা, ব্রিটেন, ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যে ভাবে নির্বাচন হয় এদেশে সেইভাবে নির্বাচনকালীন সরকারের অধীনেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।