রিজভী সম্পর্কে আমি কিছু বলতে চাই না : আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৪:৫৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৯, ২০১৯

রিজভী সম্পর্কে আমি কিছু বলতে চাই না :  আইনমন্ত্রী

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, “রিজভী নামে এক ভদ্রলোক বেগম জিয়াকে নিয়ে কী বলেন, আর কী বোঝেন এ সম্পর্কে সকলের সন্দেহ আছে। তার সম্পর্কে আমি কিছু বলতে চাই না।”
শুক্রবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলা চত্বরে এক অনুষ্ঠানের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নে আইনমন্ত্রীর এমন প্রতিক্রিয়া আসে।
দুর্নীতির দুই মামলায় ১৭ বছরের সাজা নিয়ে গত চৌদ্দ মাস ধরে কারাগারে আছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। তাকে ‘রাজনীতি থেকে সরিয়ে দেওয়ার’ জন্য ‘মিথ্যা মামলায়’ সাজা দেওয়া হয়েছে বলে বিএনপি নেতাদের অভিযোগ।
দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে বলব, দেশনেত্রীকে নিয়ে মাইনাস ফর্মুলা বন্ধ করুন। প্যারোলের নামে মাইনাস তত্ত্বের যে অশুভ চক্রান্ত চলছে, এই চক্রান্ত করে লাভ হবে না।
তার জামিনে আর বাধা দেবেন না। আইনকে তার নিজের গতিতে চলতে দিন। আদালতের উপর অবৈধ হস্তক্ষেপ বন্ধ হলেই আমাদের প্রিয় দেশনেত্রী আইনি প্রক্রিয়ায় জামিনে বেরিয়ে আসবেন।
সাংবাদিকরা শুক্রবার রিজভীর ওই অভিযোগের বিষয়ে আইনমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি বলেন, এতিমের টাকা চুরির জন্য খালেদা জিয়াকে নিম্ন আদালতে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। সেই নিম্ন আদালতে শাস্তির বিরুদ্ধে খালেদা জিয়া হাই কোর্টে আপিল করেছিলেন। সেখানে তাকে ৫ বছর থেকে ১০ বছর সাজা দেওয়া হয়েছে। এখানে সরকারের কোন হস্তক্ষেপ আমি খুঁজে পাই না।
দেশে এখন আইনের শাসন আছে বলেই দুর্নীতির বিচার হচ্ছে মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের এমপি আনিসুল হক বলেন, আমি দৃঢ়ভাবে বলতে পারি, বিএনপির সময় আইনের শাসন ছিল না। জননেত্রী শেখ হাসিনা যেদিন থেকে সরকার গঠন করেছেন, সেই দিন থেকে বিচার ব্যবস্থা স্বাধীন।
সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার আগে কসবা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর অফিসের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন আইনমন্ত্রী।
অন্যদের মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়ত-উদ-দৌলা খান, কসবা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদুল কাউছার ভূইয়া জীবন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাসিনা ইসলাম এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।