ঢাকা ১৪ই জুন ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই জিলহজ ১৪৪৫ হিজরি

রোকেয়া ভাস্কর্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং ক্যাম্পাসে র‌্যলি

redtimes.com,bd
প্রকাশিত ডিসেম্বর ৯, ২০১৭, ০৬:২৪ অপরাহ্ণ
রোকেয়া ভাস্কর্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং ক্যাম্পাসে র‌্যলি

বেগম রোকেয়ার ১৩৭তম জন্ম ও ৮৫তম মৃত্যু দিবস উপলক্ষে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট ইডেন কলেজ শাখার উদ্যোগে আজ ৯ ডিসেম্বর সকাল ৮.৩০টায় কলেজের অস্থায়ী রোকেয়া ভাস্কর্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং ক্যাম্পাসে র‌্যলি করা হয়। বেলা ১১টায় কলেজের অস্থায়ী রোকেয়া ভাষ্কর্যের সামনে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট ইডেন কলেজ শাখার সভাপতি নবীনা আক্তারের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কলেজের সংগঠক মুনতাহা মৌ, ফৌজিয়া মিথিলা। সমাবেশ পরিচালনা করেন সংগঠনের কলেজ শাখার সাধারণ সম্পাদক শাহীনুর আক্তার।
বেগম রোকেয়ার জীবন সংগ্রাম বিষয়ে বক্তারা বলেন, বেগম রোকেয়া আজ থেকে ১৩৭ বছর আগে ১৮৮০ সালের ৯ ডিসেম্বর রংপুর জেলার পায়রাবন্দ গ্রামে জন্মগ্্রহণ করেন। একদিকে অবরোধ প্রথা অন্যদিকে অশিক্ষার অভিশাপ-এমনি এক সামাজিক পরিবেশে বেড়ে ওঠেন তিনি। শিক্ষাগ্রহণে প্রবল আকাক্সক্ষার কারণে এবং কখনও বড় ভাই কখনও স্বামীর সহযোগিতায় পারিবারিক-সামাজিক বাধা উপেক্ষা করতে পেরেছিলেন। ১৮৯৬ সালে ১৬ বছর বয়সে তাঁর বিয়ে হয়। স্বামীর মৃত্যুর পর ১৯০৯ সালে ৫ জন ছাত্রী নিয়ে ভাগলপুরে থাকার ঘরে স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন রোকেয়া। কিন্তু সপতœী কন্যা ও জামাতা সম্পত্তির লোভে রোকেয়ার জীবন অতিষ্ঠ করে তোলে। আদর্শবাদী রোকেয়া ব্যক্তিগত বিষয়-সম্পত্তিগত স্বার্থ ভাবনার উর্দ্ধে ছিলেন। ঘর, সম্পত্তি আর নিরাপত্তার মোহ ত্যাগ করে এক শতাব্দী আগে ২৯ বছরের এক বিধবা তরুণী মেয়েদের স্কুল প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্যে পা বাড়ালেন কোলকাতায়। কোথা থেকে পেলেন এই শক্তি ও সাহস!! ভালবেসে ছিলেন মানুষকে-অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে উৎসারিত হয়েছিল সেই নিঃস্বার্থ ভালবাসার শক্তি। ১৯৩২ সালের ৯ ডিসেম্বর ভোর ৪ টায় ৫২ বছর বয়সে তিনি নিজ স্কুলে মৃত্যুবরণ করেন।
সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে নবীনা আক্তার বলেন, নারীশিক্ষা বিস্তারে বেগম রোকেয়ার ভূমিকার তুলনা হয়তো পাওয়া যাবে। কিন্তু মানুষের দুঃখ, বিশেষ করে অবহেলিত নারীসমাজের অবর্ণনীয় দুর্গতির বাস্তব চিত্র উপস্থিত করে শ্লেষ, বিদ্রুপ, কৌতুকরস, বৈজ্ঞানিক যুক্তিবাদ, ঐতিহাসিক নজির ও উন্নত জীবনের স্বপ্ন তুলে ধরে, উঁচু স্তরের রুচি ও মূল্যবোধের আবেদন দিয়ে, বিবেকের কষাঘাতে নারীমুক্তির যে আকুতি রোকেয়া তাঁর সাহিত্যকর্ম ও জীবনসংগ্রামের মধ্যে রেখে গেছেন, সেখানে তিনি অনন্য ও বিশিষ্ট। সাম্প্রতিক নারী নির্যাতন ও বৈষম্যের ক্রমবর্ধমান চিত্র পরিষ্কারভাবে আমাদের দেখিয়ে দেয় রোকেয়ার জীবন সংগ্রাম এবং চিন্তা, শিক্ষা ও সাহিত্যকর্ম থেকে আমরা কত দূরত্বে অবস্থান করছি। পথে-ঘাটে, কর্মস্থলে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে, ঘরে-বাইরে সর্বত্র নারীর উপর সহিংসতা, লাঞ্ছনা, অপমানের ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটছে। সমকাজে সমমজুরি না পাওয়া, যৌতুক, বাল্যবিবাহের বলি হওয়া, সম্পত্তির উত্তরাধিকারে সমঅধিকার না পাওয়া, সিনেমা-নাটক-বিজ্ঞাপনে নারীকে পণ্য হিসেবে উপস্থাপন করাÑ এসবই স্বাধীন দেশে রোকেয়ার মৃত্যুর ৮২ বছর পরেও আপামর নারীদের জীবন চিত্র। সমাবেশ থেকে নারীর প্রতি সকল ধরনের বৈষম্য ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে নারী-পুরুষ ঐক্যবদ্ধ লড়াই গড়ে তোলার আহ্বান জানান হয়।

June 2024
S M T W T F S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30