লকডাউনে যা করছেন আশুলিয়ার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট

প্রকাশিত: ৯:১০ অপরাহ্ণ, জুলাই ২, ২০২১

লকডাউনে যা করছেন আশুলিয়ার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট

কামরুজ্জামান হিমু

লকডাউনে সাধারণ মানুষকে ঘরে রাখতে সর্বাত্তক কাজ করে চলেছে স্থানীয় প্রশাসন। এরই ধারাবাহিকতায় সাভারের আশুলিয়ায় সরকার ঘোষিত লকডাউন বাস্তবায়নে কাজ করে চলেছেন আশুলিয়া রাজস্ব সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শেখ জাহিদ হাসান প্রিন্স। ভোর থেকেই বৃষ্টি উপেক্ষা করে সেনাবাহিনী ও পুলিশকে সাথে নিয়ে তিনি আশুলিয়ার বাইপাইল, বারইপাড়া কবিরপুর,শিমুলিয়া সহ বিভিন্ন পয়েন্টে সরকার আরোপিত বিধি-নিষেধ কার্যকর করতে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি রেডটাইমসকে জানান,

আজ করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধকল্পে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ কর্তৃক আরোপিত বিধিনিষেধ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বাইপাইল, বিশমাইল, জিরানি, ইয়ারপুর এবং ফ্যান্টাসি কিংডম সংলগ্ন বিভিন্ন এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়।মামলার সংখ্যা – ০৭ ।
মোট জরিমানা – ৬,৩০০/- টাকা ।

তিনি আরও বলেন, কিছু দোকান-পাট খোলা ছিল।তাদেরকে সচেতন করে দোকানগুলো বন্ধ করা হয়েছে। ভ্যানে যাত্রী পরিবহন সম্পূর্ণ নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। কাভার্ড ভ্যানগুলো সরকারি নিয়মে চলছে কিনা তা যাচাই করে আইনের আওতায় আনা হয়েছে।
গার্মেন্টস শ্রমিক পরিবহন এর ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান, আমরা মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সর্বশেষ সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কোম্পানির নিজস্ব পরিবহনে যাতায়াতের সুযোগ দিচ্ছি তবে ব্যক্তিগত কোনো বাহনে যাতায়াতের সুযোগ নেই। প্রয়োজনে তারা পায়ে হেঁটে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারবে।
লকডাউনের আগামী দিনগুলোতে প্রশাসন আরো কঠোর অবস্থানে যাবে ও আন্তঃজেলা পরিবহনে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করা হয়েছে। রেস্টুরেন্ট কেউ বসে খাবার খেতে পারবে না তবে প্রয়োজনে পার্সলে রেস্টুরেন্ট থেকে খাবার নিয়ে যেতে পারবে।
সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তিনি এখনও কাজ করে চলেছেন।

ছড়িয়ে দিন