লন্ডন শহরে ৮ হাজারের ও বেশী লোক খোলা আকাশের নীচে ঘুমায়

প্রকাশিত: ৪:৩৮ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ২০, ২০১৭

লন্ডন শহরে ৮ হাজারের ও বেশী লোক খোলা আকাশের নীচে ঘুমায়

লন্ডন শহরে ৮ হাজারের ও বেশী লোক খোলা আকাশের নীচে ঘুমায় ।আগে এর সংখ্যা ছিল আরো বেশী ।এই তথ্য জানিয়েছেন লন্ডনের মেয়র সাদেক খাঁ । সম্প্রতি তিনি প্রচারাভিযানে নেমেছেন। তাঁর প্রচারের বিষয় ‘লন্ডন শহরে কোন মানুষকেই রাস্তায় ঘুমুতে হবে না’। এক টুইটার বার্তায় তিনি লিখেছেন, আমার ক্ষমতার মধ্যে যা আছে তা দিয়েই আমি সচেষ্টভাবে কাজ করে যাচ্ছি গৃহহীন মানুষদের বাইরে ঘুমানো রোধ করতে। আমাদের এ প্রচারাভিযানে প্রভুত সফলতা আসছে। নোংরাভাবে, বাইরে বা রাস্তায় ঘুমানো মানুষের সংখ্যা আগের থেকে এখন অনেক কমে আসছে। বিশেষ করে ২০০৯ সালের পর থেকে বেড়ে উঠা সংখ্যা এখন থেকে অনেক অনেক কম। 
তিনি আরো লিখেছেন, সংখ্যা কমে আসার কারণে যে আমরা থেমে গেছি তা নয়। আমাদের এ অভিযানের পরও যদি কাউকে নোংড়াভাবে, বাইরে বা রাস্তায় শুয়ে থাকতে পাওয়া যায় তা’হলে অবশ্যই আমাদের প্রকল্পের পক্ষ থেকে সঠিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ না’হলে এক জনের দেখে অন্যজন উৎসাহিত হবে।
এ লক্ষ্যে গৃহীত মেয়রের ‘হেল্প রাফ স্লিপারস’ প্রকল্পের প্রচারপত্রের বিষয়টি বেশ উল্লেখযোগ্য। মেয়রের ছবি সম্বলিত সেই প্রচার পত্রে ‘উন্মুক্ত আকাশের নিচে ঘুমানো’ মানুষের সংখ্যার উল্লেখ করে তিনি বলেছেন ৮হাজারেরও উপরে রয়েছে এসব মানুষের সংখ্যা। সংখ্যা যা-ই হোক না কেনো শ্রমিক দল এ সমস্যার বিষয়ে পেছন দেখাবে না। আমরা বুঝি, সব মানুষেরই ঘুমানোর জন্য একটু উষ্ণ জায়গার প্রয়োজন বিশেষকরে এ প্রচন্ড শীতের সময়।

জরুরী আশ্রয়ের এ সেবা সপ্তাহের ৭দিনই ২৪ঘন্টা জনে জনে পাওয়া যাবে। শুধু তাই নয়, মেয়র প্রদত্ত এ সেবার আওতায় রাস্তায় ঘুমানো মানুষেরা মাথা গোঁজার ঠাই তো পাবেই সাথে কিছু না কিছু খাবার ব্যবস্থাও রয়েছে। এর ফলে হাড় কাঁপানো এ শীতের সময়, নিরীহ সাধারণ গরীব মানুষের জীবন বিনাশী এ সমস্যা শোনার অন্ততঃ একটি ব্যবস্থা হল।