লালমনিরহাটে এভিয়েশন অ্যান্ড এরোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু

প্রকাশিত: ১২:২৫ পূর্বাহ্ণ, জুন ২৮, ২০২২

লালমনিরহাটে এভিয়েশন অ্যান্ড এরোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু

আদিতমারী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহারহাটের সদর উপজেলায় দেশের প্রথম এভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এভিয়েশন এন্ড অ্যারোস্পেস। বিমান বাহিনীর নিজস্ব জায়গায় অস্থায়ীভাবে কেক কাটার মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক পাঠদান কর্মসূচি শুরু হয়। পাঠদান কর্মসূচির আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন ভিসি BSMRAAU, এয়ার ভাইস মার্শাল মোঃ নজরুল ইসলাম, জিডিপি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এভিয়েশন এন্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়টি বাংলাদেশের প্রথম বিশ্ববিদ্যালয় যা দক্ষিণ এশিয়ার নবম। জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলনের পর ভিসি এবং প্রো-ভিসি ক্যাম্পাসে একটি করে বৃক্ষ রোপন করেন।

এভিয়েশনের ভিসি, প্রো ভিসি, লেকচারার ও কর্মকর্তাদের জন্য হাড়ীভাঙগায় আবাসিক ভবন গাঙ্গচিলের কাজ পুরোপুরি সম্পূর্ণ হয়েছে। ইতোমধ্যে কর্মকর্তারা সেখানে থাকা শুরুও করেছেন। বর্তমানে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪টি গাড়ী রয়েছে তার মধ্যে একটি জীপ,২ টি মাইক্রোবাস ও ২ টি কোস্টার বাস রয়েছে। কোস্টারগুলো ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়াতের জন্য আর জীপ ও মাইক্রোবাস ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার জন্য।

উল্লেখ্য একাডেমিক কার্যক্রম শুরু হলেও কনস্ট্রাকশন ও ডেকোরেশনের কাজ চলমান রয়েছে। বর্তমানে জেলা শহরে বিভিন্ন জায়গায় ভাড়া করা বাসায় ১৫০জন ছাত্র- ছাত্রী থাকছেন।বিমান এবং বৈমানিক বিষয়ে এমন উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জেলায় স্থাপিত হওয়ায় লালমনিরহাট জেলা সহ আশেপাশের জেলার জনগণ উচ্ছ্বসিত।

এসময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এয়ার ভাইস মার্শাল মাহমুদ হোসেন(অবঃ)।শেখ মুজিবুর রহমান এভিয়েশন অ্যান্ড এরোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি,রেজিস্ট্রার,ট্রেজারার, শিক্ষক,কর্মকর্তা,কর্মচারী ও ছাত্র -ছাত্রীবৃন্দ।